ভারত থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ছুটছে বাংলাদেশে

প্রকাশিত: ৯:১৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

স্বাদে-গুণে অন্যন্য রূপালী ইলিশ বেশ জনপ্রিয় বাংলাদেশ ও ভারতের মানুষের কাছে। এমনকি মাছটির প্রজনন ক্ষেত্রও উভয় দেশের অভিন্নসহ বড় নদীগুলোতে। এসব তো জানা কথা, নতুন কথা হলো- ইলিশ এখন ভারতীয় এলাকা থেকে চলে আসছে বাংলাদেশে। বিষয়টি রীতিমতো ভারতীয়দের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গঙ্গা ও তার শাখা নদীগুলো এক সময় ইলিশের অন্যতম প্রধান প্রজনন ক্ষেত্র ছিল। এখন এই মাছের প্রধান প্রজননস্থলে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের বড় নদীগুলো। এর ফলে চলতি মৌসুমে এই দুই দেশের নদীতে ইলিশের আনাগোনা বেড়ে গেলেও ইলিশ-শূন্য হয়ে পড়েছে ভারতীয় গঙ্গা।

বাংলাদেশের মৎস্য বিভাগ বলছে, গেল দুই বছরের চেয়ে এবার ইলিশ বেশি ধরা পড়েছে প্রায় ১৯ শতাংশ। এখন পর্যন্ত খুলনা, চট্টগ্রাম, ভোলা ও পটুয়াখালীর বিভিন্ন নদীর মোহনায় মাছটি শিকার হয়েছে প্রায় ৫৯ লক্ষ টন। এর ঠিক উল্টো চিত্র দেখা গেছে ভারতের বেলায়।

দেশটির ইউনাইটেড ফিশারমেন অ্যাসোসিয়েশনের পশ্চিমবঙ্গ শাখা বলছে, চলতি মৌসুমে গঙ্গায় ইলিশের দেখা যেন মিলছেই না। তার বক্তব্যের সঙ্গে মিল পাওয়া গেছে কাকদ্বীপের মৎস্যজীবী সদানন্দ হালদারের কথায়ও। তিনি আনন্দবাজার পত্রিকাকে বলেন, ১৫ দিনে মোহনায় ইলিশ শিকার হয়েছে মাত্র ৪০টি।

এমন অবস্থার কারণ জানিয়েছে ভারতের সাউথ এশিয়া নেটওয়ার্ক অব ড্যাম রিভার অ্যান্ড পিপল (এসএএনডিআরপির)। সংস্থাটির মৎস্য বিশেষজ্ঞ নীলেশ শেট্টি বলেন, পশ্চিমবঙ্গে গঙ্গার তীরে শতাধিক পৌরসভা গড়ে উঠেছে। সেইসঙ্গে নদীর পারে গড়ে তোলা হয়েছে অসংখ্য কল-কারখানা। এসবের যাবতীয় আবর্জনা ও বর্জ্যে ব্যাপক মাত্রায় দূষিত হচ্ছে গঙ্গা।

গঙ্গাকে অনেক বেশি অবহেলা করায় সামুদ্রিক ইলিশ তার প্রজন ক্ষেত্রে বদলেছে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, লোনা পানির ঘেরাটোপ থেকে ডিম রক্ষায় প্রজননের জন্য মিষ্টি পানি বেছে নেয় ইলিশ। এ জন্য নদীর মোহনায় ফিরে আসে এই মাছটি। দূষণের গঙ্গার পানির লবণাক্ততা বেড়ে যাওয়ায় এর বিরপীত চিত্র পাওয়ায় বাংলাদেশ বা মিয়ানমারের নদীতে ডিম ছাড়ছে মা ইলিশ।

মন্তব্য করুন