ভারতে বিধানসভায় নামাজের ঘর, বিজেপির প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১

ভারতের ঝাড়খণ্ড রাজ্যের নতুন বিধানসভা ভবনে নামাজের জন্য একটি ঘর নির্দিষ্ট করে দিয়েছিলেন স্পিকার। রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি এর ব্যাপক প্রতিবাদ জানিয়েছে। এমনকি গতকাল বৃহস্পতিবার রাজ্যজুড়ে তারা কালো দিবস পালন করে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিধানসভার পুরাতন ভবনে আগে থেকেই নামাজ পড়ার একটি ঘর ছিল। নতুন ভবন হওয়ার পর সেখানকার মুসলিম বিধায়ক ও কর্মীরা নামাজ পড়ার জন্য স্পিকারের কাছে একটি ঘর বরাদ্দের আবেদন জানান। তার প্রেক্ষিতে গত সোমবার বিধানসভার সচিবালয় জানায়, টি ডব্লিউ ৩৪৮ নম্বর ঘরটিকে নামাজ পড়ার জন্য ব্যবহার করা যাবে।

বিজেপি এর প্রতিবাদে রাস্তায় নামে। তাদের অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সরেন তোষণের রাজনীতির সব সীমা ছাড়িয়ে গেছেন। সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতা বাবুলাল মারান্ডি টুইটে লিখেছেন, ঝাড়খণ্ড বিধানসভায় কোনো একটি শ্রেণির জন্য নামাজ ঘর করে দেওয়া গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের সম্পূর্ণ বিপরীত।

এ বিষয়ে স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাতো বলেন, ‘আগের ভবনেও মুসলমানদের নামাজ পড়ার জন্য একটি ঘর ছিল। নতুন ভবনেও সেরকম একটি ঘরের আবেদন আসায় খালি ঘর দিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে অহেতুক বিতর্ক হচ্ছে।’

এর জবাবে বিজেপি পাল্টা দাবি করে, তাহলে বিধানসভা ভবনে মন্দির করে দেয়া হোক। কারণ পুরনো ভবনে দুটো মন্দির ছিল। এ দাবি মানা না হলে আন্দোলন জোরদার হবে। সংখ্যাগুরুরা তাদের বড় হৃদয় দেখাবে, অন্যদিকে মুসলিম বিধায়করা তালেবানের সমর্থন করবে, এটা চলতে পারে না।

এসব বাদানুবাদের প্রেক্ষিতে স্পিকার রবীন্দ্রনাথ মাহাতো জানিয়েছেন, সর্বদলীয় কমিটি বিষয়টি চূড়ান্ত করবে।

উল্লেখ্য, ওই রাজ্যে ২০১৯ সাল থেকে ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার নেতৃত্বাধীন সরকার রয়েছে। বিজেপি সেখানে প্রধান বিরোধী দল।

 

এন.এইচ/

মন্তব্য করুন