আফগানিস্তানে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবে ইরান-চীন

প্রকাশিত: ৫:২২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২১

চীন ও ইরান আফগানিস্তানের উন্নয়নে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চায়। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) ইরানের নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আবদোল্লাহিয়ানের সঙ্গে ফোনালাপে এই মতামত ব্যক্ত করেছেন।

চীনের সঙ্গে ইরানের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে তারা এই মতবিনিময় করেন। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের খবর।

আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রকে দোষারোপ করেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানকে পুনর্গঠন করার বিষয়ে দুই দেশের শীর্ষ কর্মকর্তারা একমত প্রকাশ করেছেন।

চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই বলেন, প্রতিবেশী দেশ হিসেবে চীন ও ইরান আফগানিস্তানের পুনর্গঠনে গঠনমূলক ভূমিকা রাখতে পারে। শক্তিশালী যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং সমন্বয় সাধন করে শান্তিপূর্ণভাবে আফগানিস্তানের অবকাঠামোসহ নানা বিষয়ের সংস্কার সম্ভব।

ওয়াংয়ের অভিযোগ, আমেরিকা চীন ও রাশিয়ার ওপর নজরদাবি বাড়াতে আফগান থেকে সেনা প্রত্যাহার করেছে। তিনি বলেন, আফগানিস্তানে নতুন কোনো ঝামেলা করা যুক্তরাষ্ট্রের ঠিক হবে না। আমরা চাই না, আমাদের প্রতিবেশী দেশ আফগানিস্তানে নতুন কোনো সমস্যা সৃষ্টি করুক।

চীন ইরানের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব শক্তিশালী করতে চায়। কারণ যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। তেহরান-বেইজিং বন্ধন শক্তিশালী করতে চীন আরও উদ্যোগী হতে চায় বলেও জানান ওয়াং।

চলতি বছরের মার্চে ইরান-চীন সম্পর্ক নতুন করে শুরু হয়। এ সময় দুই দেশ ‘অংশীদারিত্বের সমন্বিত কর্মকৌশল’ হিসেবে একটি চুক্তিতে উপনীত হয়। এই চুক্তির মেয়াদ ২৫ বছর। চুক্তির আওতায় তেল, গ্যাস এবং পারমাণবিক জ্বালানি ইত্যাদি বিষয়ে বেলট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ প্রকল্পের আওতায় পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হবে।

 

এন.এইচ/

মন্তব্য করুন