আক্রান্তদের হোটেলে রাখার চিন্তা করছে সরকার

প্রকাশিত: ৯:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২১

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, করোনায় আক্রান্ত যেসব রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন পড়ে না, তাদের হোটেলে রেখে চিকিৎসা দেওয়া কথা চিন্তা করছে সরকার। কারণ, হাসপাতালে জায়গা নেই।

তিনি বলেন, ‘আমরা এখন হোটেল খুঁজছি, যেখানে একটা ব্যবস্থা করতে পারি। যারা মৃদু আক্রান্ত হয়েছে, তাদের রাখতে পারি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ কাজটি করবে।’

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মাইল্ড কেস, যেসব রোগীর হাসপাতালে ভর্তি করার প্রয়োজন পড়ে না, তাদের জন্য আমরা আলাদা হোটেল ভাড়া করার চিন্তা করেছি।

যে হোটেলে ডাক্তার, নার্স এবং ওষুধপত্র থাকবে। কিছু অক্সিজেনের ব্যবস্থাও আমরা রাখবো। তারা সেখানে চিকিৎসা নিয়ে ভালো হয়ে গেলে বাড়ি চলে যেতে পারবেন। সেই ব্যবস্থাটুকু আমরা হাতে নিয়েছি।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘হাসপাতালগুলোর ৯০ শতাংশ সিটে রোগী আছে। আইসিইউ ৯৯ শতাংশ ভরে গেছে। এই চিন্তা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করছি। সেটার কাজ চলমান আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘চীনের সিনোফার্ম ও বাংলাদেশের একটি কোম্পানির সঙ্গে এই টিকা উৎপাদন করার কার্যক্রম অনেক দূর এগিয়ে গেছে। আইন মন্ত্রণালয়ের অনাপত্তিপত্রও আমরা পেয়ে গেছি। ভ্যাকসিনের পাশাপাশি মাস্ক পরা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সাত দিনে প্রায় এক কোটি টিকা আমরা দেবো, এটাই আমাদের উদ্দেশ্য। টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে গ্রামের যারা বয়স্ক, তাদের অগ্রাধিকার দেবো।

যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই তাদের জন্য জন্মনিবন্ধনপত্র বা এসএসসির সনদ নিয়ে টিকা দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আইএ/

মন্তব্য করুন