ধর্মীয় বিধান পালনের সুযোগ পাচ্ছেন মুসলিম খেলোয়াররা

প্রকাশিত: ৮:১৩ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২১

মুসলিম খেলোয়ারদের ধর্মীয় বিধান পালন নিশ্চিত করে প্রথম বারের মতো একটি চার্টার প্রকাশিত হয়েছে। গত ২৫ জুন ব্রিটেনের অলাভজনক সংস্থা নুজুম স্পোর্টস ‘দ্য মুসলিম অ্যাথলিট চার্টার’ নামে একটি সনদ প্রকাশ করে। মুসলিম খেলোয়ারদের ধর্মীয় অধিকার নিশ্চিত করতে এটিই প্রথম সনদ বলে মনে করা হয়।

মুসলিম পুরুষ ও নারী খেলোয়াড়দের সমর্থনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান যেন এগিয়ে আসে এই লক্ষ্য বাস্তাবায়নে চার্টারটি প্রকাশ করা হয়েছে। চার্টারে সব মিলিয়ে ১০টি ধারা রয়েছে। এর মধ্যে অ্যালকোহল পরিহার, নামাজের জন্য উপযোগী স্থানের ব্যবস্থা করা, হালাল খাবার পরিবেশন ও রমজান মাসে রোজা রাখার অনুমতি দেওয়াসহ ইসলামের বিভিন্ন ধর্মীয় বিধান পালনের নিশ্চয়তা দেওয়া হয়।

জানা যায়, ইংল্যান্ডের চারটি প্রধান ফুটবল লিগের প্রথম টিম এবং অ্যাকাডেমিগুলোয় ২৫০ জনের মতো মুসলিম ফুটবলরার আছে। এদের মধ্যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পল পগবা, লিভারপুলের সালাহ এবংমানে, চেলসির এন’গোলো কন্তে ও অ্যান্তোনিও রুডিগাররা বিশ্বব্যাপী বেশ পরিচিত।

এই চার্টার প্রকাশিত হওয়ার আগেই প্রিমিয়ার লিগের পাঁচটি এবং ইএফএলের ১৫টি ক্লাব একে সমর্থন জানিয়েছে। এদিকে কিক ইট আউট’ এবং ফুটবল সাপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের মতো ক্যাম্পেইন এই উদ্যোগের সাথে আছে বলে জানায়।

নুজুম স্পোর্টসের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী ইবাদুর রহমান বিবিসিকে বলেন, ‘পল পগবার বোতল লুকিয়ে রাখার এই ঘটনা থেকে শিক্ষার প্রয়োজনীয়তার দিকটি বোঝা যাচ্ছে। খেলাধুলার জগতে কাজ করার সুবাদে আমি জানি যে এখানে ধর্ম মেনে চলা কতটা কঠিন।’

তিনি আরো জানান, ‘খেলোয়াড় ও ক্লাবগুলোর সাথে কথা বলে আমরা এটা অনুভব করেছি যে যুক্তরাজ্যে একটি মুসলিম অ্যাথলিট চার্টার চালু করার এটাই সঠিক সময়। আমরা বিশ্বাস করি এটাই প্রথম এবং এর মতো কিছু আগে হয়নি। ইতিমধ্যে বিভিন্ন ক্লাব ও সংগঠনগুলো সংহতি, সমতা এবং নিজেদের ক্লাব ও টিমে মুসলমান খেলোয়াড়দের অবদানের স্বীকৃতি দেয়ার ইতিবাচক আন্দোলনে যোগ দিতে শুরু করেছে।’

ব্রেন্টফোর্ড ক্লাবের একজন মুখপাত্র বিবিসি স্পোর্টকে বলেছেন, ‘যুক্তরাজ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় গোষ্ঠী হলো মুসলিম এবং এই সম্প্রদায় দ্রুত বাড়ছে। প্রিমিয়ার লিগেরই বিভিন্ন ক্লাবে ৭০ জনের মতো মুসলিম খেলোয়াড় খেলে থাকে।’

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন