ভারতে মুসলিমদের হত্যার হুমকি; এখনই ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: ইসলামী আন্দোলন

প্রকাশিত: ৭:৩১ অপরাহ্ণ, জুন ১০, ২০২১

ভারতের হরিয়ানাতে একজন মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যার পর কট্টরপন্থী হিন্দু নেতা সুরজ পাল আমু তার ফেসবুক পেজে তা আপলোড করে আরো মুসলিম যুবক হত্যার ডাক দেয়। বিজেপির কট্টরপন্থিদের এধরণের ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান।

আজ এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, ধর্মনিরপেক্ষবাদের ধ্বজাধারী বিজেপি’র মুসলিমবিদ্বেষী মনোভাবের কারণে পুরো হিন্দুস্থানে অশান্তির আগুন জ্বলছে। মহাপঞ্চায়েতগুলো থেকে ক্রমাগত হুমকি আসতে থাকায় রাজ্যের মুসলিম সমাজ আতঙ্কে ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।

কেননা গত ১৬ মে হরিয়ানার খলিলপুর খেডা গ্রামের বাসিন্দা আসিফ খান তার বাড়ি থেকে একটু দূরে সোহনা শহরে ওষুধ কিনতে গিয়েছিলেন, তখন তার গ্রামেরই কয়েকজন হিন্দু তাকে ঘিরে ধরে পিটিয়ে মেরে ফেলে। তারা বলেন, এভাবে মুসলিম হত্যা ও নির্যাতন অব্যাহত থাকলে সর্বত্র অশান্তির আগুন জ্বলবে।

তখন কারোর জন্যই তা কল্যাণকর হবে না। নেতৃদ্বয় বলেন, হুমকি ও চরম বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের কারণে ভারতজুড়ে মুসলিমদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। নেতৃদ্বয় বলেন, ভারতে মুসলিম নিধন বন্ধ করতে হবে। বিশ্ব মুসলিম উম্মাহকে ভারতের মুসলিম বিরোধী অবস্থানের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধ গড়ে তুলতে ব্যর্থ হলে তার খেসারত দিতে হবে।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন