৪০ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু ৩৭ জন

প্রকাশিত: ৭:৩৬ অপরাহ্ণ, মে ৭, ২০২১

করোনাভাইরাস সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা পাঁচ সপ্তাহ পর পঞ্চাশের নিচে নেমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গত ৪০ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। গত ২৮ মার্চ এর চেয়ে কম ৩৫ জনের মৃত্যুর হয়েছিল।

এরপর মৃত্যু এর নিচে নামেনি। বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয়েছিল ৪১ জনের। আজকের ৩৭ জন নিয়ে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেলেন ১১ হাজার ৮৩৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ৬৮২ জন। এদের নিয়ে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন সাত লাখ ৭০ হাজার ৮৪২ জন। একই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৭৮ জন। এ নিয়ে দেশে করোনা থেকে সুস্থ হলেন সাত লাখ ৪ হাজার ৩৪১ জন।

সর্বশেষ শনাক্তসহ দেশে করোনাভাইরাসে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭ লাখ ৭০ হাজার ৮৪২। সর্বশেষ ৩৭ জনসহ বাংলাদেশে মোট মৃতের সংখ্যা ১১ হাজার ৮৩৩।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সর্বশেষ বাড়ি ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরো ২ হাজার ১৭৮ জন করোনা রোগী সুস্থ হওয়ায় মোট সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৪ হাজার ৩৪১ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৪৪৩ টি ল্যাবরেটরিতে ১৭১ হাজার ১৩ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

মারা যাওয়া ৩৭ জনের মধ্যে ২৩ জন পুরুষ আর নারী ১৪ জন। তাদের ২৮ জন সরকারি হাসপাতালে, ৮ জন বেসরকারি হাসপাতালে ও একজন বাসায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এদের বয়স বিবেচনায় ২০ জন ষাটোর্ধ্ব। বাকিদের মধ্যে ১১ জনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছর, পাঁচজন ৪১ থেকে ৫০ বছরের এবং একজন ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ছিলেন।

মৃতদের মধ্যে ১৯ জন ঢাকা বিভাগের, ১১ জন চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সিলেট বিভাগের দুজন করে এবং খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহের একজন বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন ।

দেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ১১ হাজার ৮৮৩ জনের মধ্যে ৮ হাজার ৫৮৯ জন পুরুষ ও ৩ হাজার ২২৪ জন নারী।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, টিকা সংকটের কারণে গত ২৬ এপ্রিল থেকে প্রথম ডোজের প্রয়োগ বন্ধ করে সরকার। প্রথম ডোজ গ্রহণকারীদের দ্বিতীয় ডোজ নিশ্চিত করতে ১৪ লাখ ডোজের ঘাটতি রয়েছে। নতুন করে প্রথম ডোজ দেয়া শুরু হলে তখন নিবন্ধনও চালু করা হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রথম শনাক্ত হয়। এরপর মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে শতাধিক দেশে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়লে গত বছরের ১১ মার্চ করোনাকে বৈশ্বিক মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর মৃত্যুর খবর জানায় সরকার।

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম ও মৃতের সংখ্যা বিবেচনায় বাংলাদেশ ৩৭তম অবস্থানে রয়েছে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে গণটিকাদান কার্যক্রম শুরু করে সরকার।

মন্তব্য করুন