বরিশালে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলছে

প্রকাশিত: ৯:৩২ অপরাহ্ণ, মে ১, ২০২১

মহিব্বুল্লাহ মহিব, বরিশাল প্রতিনিধি: বরিশাল ও বরগুনার বিভিন্ন উৎসের পানি পরীক্ষা করে ডায়রিয়ার জন্য দায়ী ‘ই-কোলাই’ ব্যাকটেরিয়ার অস্তিত্ব পেয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা প্রতিষ্ঠান। এই বিভাগে ডায়রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলছে। চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে হাসপাতালগুলো। জনবল সংকটে মারাত্মক দুর্ভোগে পড়েছেন রোগীরা। শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও বয়স্ক ডায়রিয়া রোগীদের চিকিৎসা দেয়ারও অনুরোধ জানিয়েছে, সিভিল সার্জন।

পাঁচ লাখ নগরবাসীর জন্য বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে বেড রয়েছে মাত্র চারটি। এখন প্রতিদিন এখানে চিকিৎসা নিচ্ছে অর্ধশতাধিক রোগী। মেঝে, বারান্দা এবং ওয়ার্ডের সামনে তাবু টানিয়েও চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। অতিরিক্ত রোগীর চাপে দেখা দিয়েছে স্যালাইনসহ প্রয়োজনীয় ওষুধের সংকট।

গত সাড়ে তিন মাসে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে বরিশাল জেলায় পাঁচ হাজার ৫২৯, পটুয়াখালীতে ৯ হাজার ১৩৮, ভোলায় ১০ হাজার ৫১৭, পিরোজপুরে চার হাজার ৯৮২, বরগুনায় ছ’হাজার ৫৬৬ এবং ঝালকাঠিতে চার হাজার ৬২৮ জন। মারা গেছে বরিশালে পাঁচ, পটুয়াখালীতে চার এবং বরগুনায় তিন জন।

গত কয়েক বছরের তুলানায় এবার অস্বাভাবিক হারে ডায়রিয়া বেড়েছে বলে জানান, সংশ্লিষ্টরা। ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের করোনা পরীক্ষার চেষ্টা করছেন বলে জানান, জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক। গোসল, হাড়ি-পাতিল ধোয়াসহ সব কাজে টিউবওয়েলের পানি ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন, সিভিল সার্জন।

মন্তব্য করুন