উন্নয়ন প্রকল্প ও চাকরি নিয়োগে অনিয়ম: বেরোবির নির্বাহী প্রকৌশলীসহ ৪ জন বরখাস্ত

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ৮, ২০২১

বেরোবি প্রতিনিধিঃ বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত বিশেষ প্রকল্পে দূর্নীতির অভিযোগে নির্বাহী প্রকৌশলীকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়াও ভূয়া নিয়োগপত্র দিয়ে টাকা লেনদেনের ঘটনায় এক সেকশন অফিসার ও এক কম্পিউটার অপারেটরকে সাময়িক এবং আরেক কর্মচারিকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গতকাল রোববার (৭ মার্চ) ঢাকাস্থ লিয়াজোঁ অফিসে অনুষ্ঠিত ৭৭ তম বিশেষ সিন্ডিকেটে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে সিন্ডিকেটের এক সদস্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থায়ীভাবে বরখাস্ত হওয়া নির্বাহী প্রকৌশলীর নাম জাহাঙ্গীর আলম। এর আগে ২০১৭ সালের ২৬ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ উন্নয়ন প্রকল্পের টেন্ডার ডকুমেন্টেস ও অন্যান্য কাগজপত্রে অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাহী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এদিকে ভুয়া নিয়োগপত্র দেখিয়ে চাকরি দেয়ার নামে টাকা লেনদেনের ঘটনায় সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সেকশন অফিসার মনিরুজ্জামান পলাশ, বঙ্গবন্ধু হলের কম্পিউটার অপারেটর শেরে জামান সম্রাটকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া একই ঘটনায় মাস্টাররোল কর্মচারী গুলশান আহমেদ শাওনকে স্থায়ী বরখাস্ত করা হয়েছে।

এর আগে চলতি বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি কর্মকর্তা পদে নিয়োগের জাল নিয়োগপত্র দেখিয়ে এক চাকরি প্রার্থীর কাছে ১৩ লাখ টাকা লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওতে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সেকশন অফিসার মনিরুজ্জামান পলাশ, বঙ্গবন্ধু হলের কম্পিউটার অপারেটর শেরে জামান সম্রাট এবং মাস্টাররোল কর্মচারী গুলশান আহমেদ শাওনকে দেখা যায় টাকা লেনদেনের ঘটনায়। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে এক সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে। তদন্ত কমিটি অভিযুক্ত তিনজনের বিরুদ্ধে বরখাস্তের সুপারিশ করে।#

মন্তব্য করুন