পবিত্র রমজানে ২৫ হাজার মেট্রিক টন ভোজ্যতেল কেনার সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত: ১১:০৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ৭, ২০২১

আসন্ন পবিত্র রমজানে তেলের বাজার স্বাভাবিক রাখতে সরকার টিসিবির (ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ) মাধ্যমে ২৫ হাজার মেট্রিক টন ভোজ্য তেল আমদানি করবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

একইসঙ্গে তিনি রমজানে অতিরিক্ত কেনাকাটা না করার আহ্বান জানান।

রোববার (৭ মার্চ) দুপুরে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়র সম্মেলনকক্ষে সফররত ভারতের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য বিভাগের সচিবের সঙ্গে বৈঠক শেষে সংবাদসম্মেলনে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, রমজানের সময় আমাদের বাজারে যাতে সমস্যায় পড়তে না হয় সেজন্য আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে। এজন্য আমরা টিসিবির মাধ্যমে ২৫ হাজার মেট্রিকটন ভোজ্য তেল আমদানি করতে যাচ্ছি।

যাতে করে নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে সহজে পৌঁছানো যেতে পারে। সব রকম ব্যবস্থাই আমরা নিয়েছি। তবে নিজেদের স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়াটাই জরুরি অনেক খানি।

তিনি বলেন, কিছু পণ্যের দাম নির্ধারণ করা যায় না। যেমন ভোজ্য তেলের দাম আন্তর্জাতিক বাজারে হঠাৎ করে বেড়ে গেছে। আমাদের প্রায় ৯০ শতাংশ তেল আমদানি করতে হয়।

এ বাজারটা আমাদের ওপর না। আন্তর্জাতিক বাজার নিয়ন্ত্রণ করে। আমরা আমদানির দামে ওপর একটা সর্বজনীন যে দামটা মানবে সে রকম একটা দাম নির্ধারণ করে দেই সেটা হলো তেলে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার থেকে রিজেনেবল প্রাইজে আনা যেতে পারে। আর কিছু জিনিস আমাদের রয়েছে যেগুলো রমজানের পণ্য।

যেমন ছোলা, খেজুর, ডাল এসব জিনিস আমদানি করতে হয়। এগুলো টিসিবির মাধ্যমে অন্যান্য বছরের তুলনায় দ্বিগুণ আমদানি করা হচ্ছে। সব কিছু বুক করা হয়ে গেছে। আশা করছি, সব কিছু এসে যাবে। রমজানের সময় আমাদের সমস্যা যেন না হয়, সেজন্য আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে।

রমজানের সময় দাম বাড়ে না, রমজানের আগেই ব্যবসায়ীরা দাম বাড়িয়ে দেয় এটা তাদের নতুন কৌশল এ বিষয়ে আপনারা কী ভাবছেন জানতে চাইলে টিপু মুনশি বলেন, এ বিষয়ে আমি আপনার সঙ্গে এক মত।

তবে কৌশলের বাইরেও কিছু কথা আছে। অনেকেই মনে করেন রোজায় নিত্যপণ্যের দাম বেড়ে যাবে, তাই রোজা শুরুর আগেই একসঙ্গে পুরো মাসের করেন। আর এ সুযোগ নেন বিক্রেতারা।

তিনি ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, রোজা শুরু হওয়ার ২৪ ঘণ্টা আগ পর্যন্ত আমরা কিছু না কিনে চুপ করে বিক্রেতারা দাম বাড়ানোর সুযোগ পাবেন না।

মন্তব্য করুন