ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের যুদ্ধাপরাধের বিচার চায় না যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০২১

ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরায়েলের যুদ্ধাপরাধ ঘটানোর অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) তদন্ত শুরু হয়েছে। কিন্তু সেটির বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

গতকাল বৃহস্পতিবার এক ফোনালাপে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে নিজেদের এ অবস্থানের কথা জানিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, হোয়াইট হাউসে দায়িত্বগ্রহণের পর বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন হ্যারিস।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত আনুষ্ঠানিকভাবে ইসরায়েলের যুদ্ধাপরাধ তদন্তের ঘোষণা দেয়ার একদিন পরেই তিনি এ পদক্ষেপ নিলেন। এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, নেতানিয়াহু ও হ্যারিস উভয়েই তাদের সরকারের পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের বিচারিক প্রচেষ্টার বিরোধিতা করেন।

পাশাপাশি আঞ্চলিক নিরাপত্তা, ইরানের পরমাণু কর্মসূচি এবং সহযোগিতা বৃদ্ধি অব্যাহত রাখতে সম্মত হয়েছেন এই দুই নেতা। ইসরায়েলের নিরাপত্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি অটল রাখার বিষয়েও গুরুত্বারোপ করেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট।

এদিকে, ইসরায়েলের যুদ্ধাপরাধ তদন্ত নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করা আইসিসির চিফ প্রসিকিউটর ফাতু বেনসৌদার মেয়াদ শেষ হয়ে আসছে।

আগামী জুনে তাকে এ পদ থেকে সরে যেতে হবে। তার আগেই গত বুধবার মামলাটির আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরুর ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। বাকি কাজ সমাপ্ত করবেন নতুন চিফ প্রসিকিউটর ব্রিটিশ আইনজীবী করিম খান।

এক বিবৃতিতে ফাতু বেনসৌদা বলেছেন, ফিলিস্তিনের পরিস্থিতি বিবেচনায় আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রসিকিউটরের কার্যালয়ের তদন্ত পুরোপুরি স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও প্রভাবমুক্ত, ভয় বা পক্ষপাতহীনভাবে পরিচালিত হবে বলে নিশ্চয়তা দিচ্ছি।

মন্তব্য করুন