ইরাকের সশস্ত্র বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেবে পাকিস্তান

প্রকাশিত: ১০:১২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২১

পারস্পরিক সামরিক সহযোগিতা মজবুত করতে সম্মত হয়েছেন পাকিস্তান ও ইরাকের কর্মকর্তারা। ইসলামাবাদে ইরাকি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সফরের সময় ইরাকের সশস্ত্র বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ারও প্রস্তাব দিয়েছে ইসলামাবাদ। খবর গলফ নিউজ

২৪ থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চারদিন পাকিস্তান সফর করেন ইরাকের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জুমা আনাদ সাদুন। এ সময় তিনি পাকিস্তানের শীর্ষ সরকারি ও সামরিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সফরে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক সুদৃঢ় করা, বিশেষ করে প্রতিরক্ষা খাতে সহযোগিতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়।

বৈঠকে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি পাকিস্তানে ইরাকি সৈন্যদের জন্য প্রশিক্ষণ প্রোগ্রাম আয়োজনের প্রস্তাব দেন। এ সময় প্রযুক্তিগত সহায়তা এবং ইরাকের অবকাঠামো উন্নয়নে মানবসম্পদ দেওয়ারও প্রস্তাব দেওয়া হয়।

প্রেসিডেন্ট আলভি বলেন, ‘ইরাকের সঙ্গে হিতকর পারস্পরিক সম্পর্কের প্রতি পাকিস্তান অত্যন্ত গুরুত্ব দেয়। বাণিজ্য, অর্থনীতি ও প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও মজবুত করতে চায়।’ এ সময় পাকিস্তানের সঙ্গে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামরিক সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ করতে ইরাকের আগ্রহের কথা জানান ইরাকি মন্ত্রী।

জিএইচকিউতে পাকিস্তানের সেনাপ্রধান কামার জাবেদ বাজওয়ার সঙ্গে বৈঠকে ইরাকি মন্ত্রী দ্বিপক্ষীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা সহযোগিতা বাড়ানোর পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করেন।

পাকিস্তানের সেনাপ্রধান ইরাকের উন্নয়ন ও প্রতিরক্ষা খাতে সম্ভাব্য সব ধরনের সহযোগিতার প্রস্তাব দেন। তিনি বলেন, পাকিস্তান ইরাকের সঙ্গে ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ককে মূল্যবান মনে করে।

এ সময় তিনি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ইরাকি জাতির আত্মত্যাগের কথা স্বীকার করেন। সফররত মন্ত্রী এ অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় অব্যাহত প্রচেষ্টার জন্য পাকিস্তানের প্রশংসা করেন।

ইরাকি মন্ত্রী পাকিস্তানের জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ কমিটির চেয়ারম্যান জেনারেল নাদিম রাজা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ শাহ কুরেশি, ডিফেন্স প্রোডাকশন মন্ত্রী জোবায়দা জালাল ও অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সময় দুই দেশের মধ্যে অর্থনীতি ও প্রতিরক্ষা খাতে পারস্পরিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়।

মন্তব্য করুন