হেফজাত নেতার উপর হামলা: বিভিন্ন ইসলামী দলের নিন্দা ও প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ৯:৪৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২১

রাজধানীর লালবাগে হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির সহকারী মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর শাখার সহসভাপতি মাওলানা জসীম উদ্দিনের ওপর বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিভিন্ন ইসলামী দলের নেতৃবৃন্দ। বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে দুর্বৃত্তদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

বুধবার ১০ ফ্রেব্রুয়ারি বাদ আসর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটে হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ মুফতী জসীম উদ্দিনের ওপর হামলার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। সংগঠনের সহসভাপতি মাওলানা ফজলুল করিম কাসেমীর সভাপতিত্বে এবং মাওলানা আতাউল্লাহ আমীনের পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরী সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা যোবায়ের আহমদ, খেলাফত মজলিসের নেতা মাওলানা শফিক উদ্দিন, মাওলানা আহমদ আলী কাশেমী, খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী ও ইসলামী ঐক্যজোট ঢাকা মহানগরী সভাপতি মাওলানা ইলিয়াস আতহারী।

এছাড়াও জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচিতে মুফতী জসীম উদ্দিনের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর সিনিয়র সহসভাপতি ও হেফাজতে ইসলামের শীর্ষ নেতা শাইখুল হাদিস মাওলানা ড. গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম।

মুফতী জসিম উদ্দিন-এর ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আরো যেসব নেতৃবৃন্দ বিবৃতি দিয়েছেন তারা হচ্ছেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের কেন্দ্রীয় আমীর ড. মাওলানা মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী ও সেক্রেটারী জেনারেল মোস্তফা তারেকুল হাসান, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল্লামা শাইখ যিয়া উদ্দীন ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী। ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী, মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ ও যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা ফজলুর রহমান।

এর আগে, গত মঙ্গলবার আসরের নামাজের পর জসীম উদ্দিন লালবাগ মাদরাসার দক্ষিণ ফটক থেকে রিকশায় করে বাসায় ফিরছিলেন। তিনি লালবাগ শাহী জামে মসজিদের প্রধান ফটক পার হওয়ার পরপর অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি পেছন থেকে তাকে ছুরি মেরে পালিয়ে যায়। আশপাশের লোকজন ধাওয়া করেও তাকে আটক করতে পারেনি। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানেও সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

জীসম উদ্দিনের ভায়রা ও হেফাজতে ইসলামের সহকারী মহাসচিব মাওলানা যোবায়ের আহমদ বলেন, ছুরির আঘাতে জীসম উদ্দিনের পিঠে গভীর ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। রক্তক্ষরণ হয়েছে। এদিকে, মাওলানা জীসম উদ্দিনের উপর হামলার ঘটনায় রাজধানীসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে দলীয় নেতাকর্মীরা।

মন্তব্য করুন