বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন কবরস্থানে ঘটছে আশ্চর্য ঘটনা

প্রকাশিত: ৩:৪৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২১

ইসমাঈল আযহার: পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের খট্টা অঞ্চলের মুকলি কবরস্থান বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন এবং বৃহত্তম কবরস্থান। ১০ ​​কিলোমিটার বিস্তৃত এলাকা জুড়ে কবরস্থানটিতে রয়েছে হাজার হাজার মানুষের কবর।

ডেইলি পাকিস্থানের খবরে বলা হয়, কবরস্থানটি ৪০০ বছরের পুরনো। ১৯৮১ সালে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান করে নেয় খট্টার কবরস্থানটি। সম্প্রতি স্থানীয়রা কবরস্থানটির সম্পর্কে এমন ভয়াবহ কাহিনী শোনাচ্ছেন যা শুনলেই ভয়ে চেহারা লাল হয়ে যায়।

সূত্রের বরাত দিয়ে ডেইলি পাকিস্তানের খবরে বলা হয়েছে, গল্পগুলোর মধ্যে একটি হল, কবরস্থানে অনেকে একটি ‘লাল কনে’ দেখেছেন। লাল কনে উচ্চস্বরে চিৎকার করেন। মধ্যরাতে তার কান্নার শব্দ আরও তীব্র হয়।

স্থানীয় লোকজন এবং কবরস্থানের একজন প্রহরী জানান, একটি কবর থেকে শিশুকে উঠে আসতে দেখেছেন তারা। শিশুটি কবর থেকে উঠে আসে, তার দিকে চোখ পড়া মাত্রই সে বৃদ্ধ হয়ে যায় এবং দৃষ্টি থেকে অদৃশ্য হয়ে যায়। সবকিছু ঘটে যায় মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে।

স্থানীয়রা কবরস্থান থেকে শিশুদের খেলা করার ও চিৎকারের শব্দ শোনেন। আরেকজন প্রহরী জানিয়েছেন, কবরস্থানের দেয়ালগুলো খুব উঁচু। সেটি দিয়ে শিশুরা প্রবেশ করতে পারে না, তবে কখনও কখনও দিনের বেলা এবং কখনও রাতে বাচ্চারা খেলা করে এবং শব্দ করে।

মন্তব্য করুন