বেরোবিতে আইন লঙ্ঘন করে বিভাগের ফল প্রকাশ: পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অবরুদ্ধ

প্রকাশিত: ৮:০৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২১

নাহিদুজ্জামান নাহিদ, বেরোবি : বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে অনিয়ম করে একটি বিভাগের ফল প্রকাশের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নাজমুল হককে অবরুদ্ধ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রশাসন ভবনের আইকিউএসি কক্ষে অবরুদ্ধ করে কর্মসূচি পালন করছে ভিসি বিরোধী শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারিদের সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদ।

তাদের অভিযোগ, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থীরা ফল প্রকাশের দাবিতে মধ্যরাতে আন্দোলন শুরু করলে প্রশাসন আন্দোলন দমাতে আইন লঙ্ঘন করে পরীক্ষা কমিটির সদস্য ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের স্বাক্ষর ছাড়াই দুই কর্মকর্তার যোগসাজশে ফল প্রকাশ করেন।

এঘটনায় গতকাল রাতে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দায়িত্বে থাকা মোরশেদ হোসেনকে অব্যাহতি দিয়েছেন উপাচার্য। আজ সকালে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দায়িত্বে যোগদান করেছেন নাজমুল হক। অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান বলেন, “ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীদের আন্দোলন দমাতে আইন লঙ্ঘন করে পরীক্ষা কমিটির সদস্য ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের স্বাক্ষর ছাড়াই দুই কর্মকর্তার যোগসাজশে তড়িঘড়ি করে ফল প্রকাশ করে প্রশাসন প্রমাণ করেছে তারা শিক্ষার্থীদের সাথেও প্রতারণা করেছেন। এজন্য ফল প্রকাশের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া জরুরি। নতুন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে অব্যাহতি না দেয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন অব্যাহত রাখবো।”

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে অবরুদ্ধ করে রাখা শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরীক্ষা কমিটির সদস্য জিনাত শারমিন। তিনি বলেন, “আমি পরীক্ষা কমিটির সদস্য হলেও ফলাফল প্রকাশ করার বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। কিভাবে যে ফলাফল প্রকাশ করা হলো আমি পরীক্ষা কমিটির সদস্য হয়েও তা জানি না।” আরেক অবরুদ্ধকারী শিক্ষক ও শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. গাজী মাজহারুল আনোয়ার জড়িতদের দ্রুত শাস্তির আওতায় না আনলে ভবিষ্যতে এমন জালিয়াতি বারবার ঘটবে বলে আশংকা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, “শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবনের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ফলাফল।

আর সেখানেও যদি প্রশ্নবিদ্ধ হয় তাহলে ৩-৪ বছর জটে থেকেও বিশ্ববিদ্যালয়ে কষ্ট করে পড়াশোনা করতে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসা বৃথা।” আইন লঙ্ঘন করে ইংরেজি বিভাগের ফলাফল তৈরিতে করার বিষয়টি স্বীকার করে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক ড. নাজমুল হক বলেন, “আমরা দ্রুত ফলাফল সংশোধনীর করার জন্য কাজ করবো।”

মন্তব্য করুন