কুচক্রিমহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে: আবদুল কাদের মির্জা

প্রকাশিত: ৬:৩১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৫, ২০২১

এম.এস আরমান,নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ীমীলীগ মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের মির্জা বলেন জিয়াউর রহমান হাঁ-না ভোটের মাধ্যমে এদেশের মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছিল।

আজ (৫ জানুয়ারী) মঙ্গলবার বিকেল ৪ ঘটিকায় গণমাধ্যমে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামীলীগ মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। দূর্ভাগ্য, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বাধীনতা বিরোধী চক্র স্বপরিবারে হত্যা করে, পিছিয়ে দেয়া হয় বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ১৯৮১সালে দেশে আসার পর থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করেন। দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন। ১৯৯৬ সালে গণরায়ে সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হন, অভুতপূর্ব উন্নয়ন সাধন করেন। ২০০৮ সাল থেকে অধ্যাবধি বাংলাদেশে যেসকল উন্নয়ন অর্জন হয়েছে ও হচ্ছে তার সব কিছু্ই দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হচ্ছে।

পদ্মাসেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেলসহ সকল মেগা প্রজেক্ট বাস্তবায়ন হতে চলেছে। এছাড়াও সমুদ্র সীমানা বিজয়, গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ, স্থল বন্দর স্থাপন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপন, রেমিটেন্সবৃদ্ধি, বৈদেশিক রিজার্ভবৃদ্ধি, বড় বড় শহরগুলোতে ও জেলায় ফোর লেন নির্মাণ, মাথাপিছু আয়বৃদ্ধি, সার্বিকভাবে জাতীয় প্রবৃত্তিবৃদ্ধি, বড় বড় প্রাকৃতিক দূর্যোগসহ করোনা কালিন সময়ে দূর্যোগ মোকাবেলা করে দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ করার মানষে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি নিজ নির্বাচনী এলাকা ছাড়াও বৃহত্তর নোয়াখালীর উন্নয়ন ও জাতীয় সারাদেশে উন্নয়নে ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন।

তিনি জানান ,সাম্প্রতিক সময়ে বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে বিভিন্ন সভায় দেয়া আমার বক্তব্য নিয়ে একটি কুচক্রিমহল নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। নির্বাচন নিয়ে নানা বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে মানুষের মাঝে। আমি শুধুমাত্র একটি অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত স্থাপনের উদ্দেশ্যে ১৬ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচন অবাধ, গ্রহণযোগ্য ও প্রভাবমুক্ত নিরপেক্ষ নির্বাচন যেন হয়, এ জন্য নানা নির্বাচনী কর্মসূচীতে আমি কথাগুলো বলছি।

এছাড়াও বিগত একযুগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের যে অভুতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে সে বিষয়গুলোও আমার বক্তব্যে আমি উল্লেখ করেছিলাম। বৃহত্তর নোয়াখালীতে আওয়ামীলীগের কিছু কিছু চামচা নেতা আছেন যারা বলেন উমুক নেতা তমুক নেতার নেতৃত্বে বিএনপির দূর্গ ভেঙ্গেছে, সত্যি কথা হলো সাধারন মানুষ বলে শেখ হাসিনা একলা কি করবেন। শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তার কারনে বৃহত্তর নোয়াখালীতে বিএনপির দূর্গ ভেঙ্গে আওয়ামীলীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে। কিন্তু কোন কোন গণমাধ্যমে সেগুলো বিস্তারিত উল্লেখ না করে বিভ্রান্তি সৃষ্টির উদ্দেশ্যে আমার বক্তব্যের খন্ড অংশ বিশেষ প্রকাশ করেছে। আমি শুধুমাত্র বৃহত্তম নোয়াখালীর আঞ্চলিক রাজনীতি নিয়ে নানা অনিয়মের কথা বলেছিলাম। জাতীয় ইস্যুতে আমি কোন বক্তব্য রাখিনি।

আই.এ/

মন্তব্য করুন