মাওলানা মামুনুল হককে আওয়ামী লীগের লোক বললেন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান

প্রকাশিত: ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০২০

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব, খেলাফত যুব মজলিসের সভাপতি, ভাস্কর্য ইস্যুতে আলোচিত ব্যক্তি হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে ‘একশ পার্সেন্ট আওয়ামী লীগের লোক’ বলে দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও পাবনা জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব।

বেসরকারী একটি টিভিতে গতকাল ভাস্কর্য নিয়ে এক টক শোতে সঞ্চালকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা বলেন  – আমি একদম নির্দিধায় ১০০% নিশ্চিত করে বলতে চাই যারা ভাস্কর্য ভেঙ্গে পদ্মাতে ফেলে দিতে চায়, শীতলক্ষ্যায় ফেলে দিতে চায়, বুড়িগঙ্গায় ফেলে দিতে চায় তারা একশ থেকে একশ পার্সেন্ট আওয়ামী লীগ সমর্থক। এই সরকার সমর্থক।

তিনি মামুনুল হককে উদ্দেশ্য করে বলেন – আমি হেফাজতের মামুনুল হকের বক্তব্য শুনেছি। তিনি চিৎকার করে বলছেন আওয়ামী লীগকে আমি ডাক দেবো, আমি আওয়ামী লীগকে আহ্বান জানাব বঙ্গবন্ধুর কবরের শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য। অথচ তিনি একজন মানুষ উনি কি খোদা নাকি? আজকে ৪৭ বছর ধরে বঙ্গবন্ধুর কবরে কি শান্তি আছে না শাস্তি আছে তা উনি কি করে বলবেন? উনি কি খোদা? তিনি যে আওয়ামী লীগকে আহবান করছেন তাতে বোঝা যায় তিনি অবশ্যই আওয়ামী লীগের লোক। আমি মনে করি এসব কথা বরং আওয়ামী লীগের জন্যই লজ্জার।

তিনি আরও বলেন – সাথে সাথে তিনি (মামুনুল হক) বলছেন, আমি আওয়ামী লীগকে সমর্থন করি, আমরা এই সরকারের বিরুদ্ধে না, প্রধানমন্ত্রীকে সহযোগিতা করতে চাই। তার এ কথা হাজার হাজার নয় বরং লক্ষ লক্ষ মানুষ ইউটিউবে দেখেছে।

তাহলে এখানে জিয়াউর রহমান কোথা থেকে আসলো? বিএনপি কোথা থেকে আসলো। প্রশ্ন রাখেন তিনি।

এরপর তিনি মামুনুল হকের প্রতি ক্ষোভ ঝেড়ে আরও বলেন – এই যে মামুনুল হক কথা বলছেন, উনি এদেশের এমপি না, মন্ত্রী না, নীতি নির্ধারণ করার মতো কেউ না।

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন – উনি কে? উনি বঙ্গবন্ধুর কবরে শান্তি দেওয়ার কে? তাহলে তো উনি আল্লাহর সাথে ক্ষমতা ভাগাভাগি করছেন! তাই বরং এর (মামুনুল হকের) বিচার করা উচিত। মামুনুল হকের তো বিচার করা উচিত।

তিনি দাবি জানিয়ে বলেন – কিছু হলেই বিএনপির লোকজনকে ধরে নিচ্ছেন। আকাশের সাথে বাতাসের সংঘর্ষ হলেও তাদের দোষারোপ করছেন। তাদেরকে গ্রেফতার করছেন সে হিসেবে মামুনুল যে স্টেইজে এসব কথা বলেছেন সেখান থেকেই তো আসতে দেয়া উচিত না।

এমনকি সরাসরি সে আল্লাহর সাথে ক্ষমতা ভাগাভাগির ঔদ্ধত্ত্ব দেখাচ্ছেন বলেও দাবি খালেদা জিয়ার উপদেষ্টার।

তিনি আরও বলেন – এই ভদ্রলোক (মাওলানা মামুনুল হক) যদি আওয়ামী লীগ সমর্থক না হতেন তাহলে তিনি প্রথম বলতেন এই সরকার রাতের বেলায় ভোট করে। ৩০ তারিখের আগে ২৯ তারিখে ভোট করেন। এই সরকার মানুষকে ভোট দিতে দেয় না। এই সরকার প্রশাসন দিয়ে মানুষকে ভোট দিতে বাধা দেয়। এই সরকার প্রশাসনের চরিত্র নষ্ট করে ফেলেছে। এই সরকারের বিরুদ্ধে আমরা আন্দোলন করতে চাই। এই সরকারকে সরিয়ে আমরা জনগণের সরকার বসাতে চাই। জনগণের অধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে। এসব বলে যদি পরে ওগুলো বলতেন তাহলে বুঝতাম যে উনি সরকারের বিপক্ষের লোক।

এখন এটা একশ পার্সেন্ট বুঝা যায় যে তিনি সরকারের পক্ষের লোক। তিনি আরও বলেন – মূলত সরকারের বিভিন্ন অপকর্ম ঢাকতে সরকার এদেরকে ভাস্কর্য আন্দোলনে লেলিয়ে দিয়েছে বলেও জোর দাবি জানান হাবিবুর রহমান হাবিব।

মন্তব্য করুন