বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ: শিরোপার লড়াইয়ে খুলনা-চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ১১:০১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০২০

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ফাইনালে আজ শুক্রবার গাজী গ্রুপ চট্টগ্রাম ও জেমকন খুলনা মুখোমুখি হচ্ছে। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বিকেল সাড়ে ৪টায়। টি স্পোর্টস ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ হওয়ায় প্রতিপক্ষ খুলনাকে এগিয়ে রাখলেন কোচ সালাহউদ্দিন। অন্যদিকে, স্বপ্ন পূরণ করতে হলে সর্বোচ্চ ক্রিকেট খেলার প্রত্যয় মাহমুদউল্লাহর।

একটা ম্যাচ হবে। যে ম্যাচের জন্য প্রতীক্ষায় ক্রিকেট পিয়াসিরা। করোনার অভিশপ্ত সময়ে ক্রিকেট সমর্থকদের অন্যতম বিনোদনের মাধ্যম হয়ে আসে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি আসর। এবার ফাইনাল। মঞ্চ প্রস্তুত। প্রত্যাশা রুদ্ধশ্বাস এক ম্যাচের।

আসরের শুরুতে আলোচনা না থাকলেও, টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলেছে চট্টগ্রাম। এ পর্যন্ত আসরের ১০ ম্যাচের মধ্যে ৮টিতে জিতেছে তারা। বিশেষ করে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক লিটন দাস ও সৌম্য সরকারের ওপেনিং জুটির দারুণ শুরু, তাদের জয়ের ভিত্তি গড়ে দিয়েছে প্রতিবার। আর বোলিংয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি মুস্তাফিজের আগুনে ফর্ম, ব্রেক থ্রুতে শরিফুলের ভূমিকা। সব মিলিয়ে তারুণ্য নির্ভর চট্টগ্রামের দিকে বাজি সবার। মাঠের বাইরে কোচ সালাহউদ্দিনের ক্রিকেটীয় মস্তিষ্ক। সব মিলিয়ে চট্টগ্রাম ১২ জনের দল। সার্বিক বিবেচনায় ফাইনালের মঞ্চে চট্টগ্রামই ফেভারিট। কিন্তু, মাঠের লড়াইয়ের আগে কথার লড়াইয়ে কৌশলী কোচ সালাহউদ্দিন।

চট্টগ্রামের কোচ মোহাম্মাদ সালাহউদ্দিন বলেন, ‘সাকিব না থাকলেও খুলনা মাশরাফী, মাহমুদুল্লাহ ইমরুল আরিফুলদের নিয়ে অনেক অভিজ্ঞ সমৃদ্ধ দল। সেক্ষেত্রে ফাইনালে খুলনাই এগিয়ে থাকবে। আমাদের ওদের বিপক্ষে জিততে হলে ব্যাটিংয়ে যেমন ভাল শুরু দরকার। ঠিক তেমনি বোলিংয়ে ধারাবাহিকভাবে ভাল করতে হবে।’

সাকিব আসরে জ্বলে না উঠলেও, তার উপস্থিতি প্রতিপক্ষের জন্য চাপ। কিন্তু, তিনি নেই। আছেন ঐ একজন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। যিনি পারফরমার আবার দলের প্রাণশক্তিও। বাস্তবিক অর্থে চট্টগ্রামের তুলনায় ব্যাটিংয়ে টপ অর্ডার আর বোলিংয়ে অতোটা ধারালো নয় খুলনা। কিন্তু, মাশরাফী-ইমরুলদের অভিজ্ঞতার সাথে মাহমুদউল্লাহর দূরদর্শী নেতৃত্বগুণ ম্যাচের রং বদলে দিতে পারে।

জেমকন খুলনার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ জানান, ‘ধন্যবাদ সালাহউদ্দিন স্যারকে, এভাবে আমাদের মূল্যায়ন করেছেন। তবে, ম্যাচটা সহজ হবে না। সেরা দুই দলই ফাইনাল খেলছে। দুই দলই চাইবে শিরোপা জিততে। সেজন্য আমাদের সেরা ক্রিকেট খেলতে হবে। প্রতিপক্ষের টপ অর্ডার ও বোলিং অ্যাটাক দারুণ। কিন্তু, তাদের শক্তিমত্তা নিয়ে না ভেবে শিরোপা জিততে হলে আমাদের সর্বোচ্চটাই ঢেলে দিতে হবে।’

শেষ বিকেলে খেলা শুরু হবে। শীতের সন্ধ্যায় শিশির সখ্যতা গড়ে মিরপুরের ক্যানভাসে। তাই ফ্ল্যাড লাইটের আলোতে বোলিং করতে চাইবে নিশ্চয় কোন দল। সেক্ষেত্র টস ভাগ্যও রাখবে বড় ভূমিকা।

মন্তব্য করুন