তুরস্কের সঙ্গে আলজেরিয়ার সম্পর্ক: নিষেধাজ্ঞার হুমকি আমিরাতের

প্রকাশিত: ১০:৩৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

তুরস্কের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকায় আলজেরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। বুধবার তুরস্কের গণমাধ্যম আল সাবাহ এ তথ্য জানিয়েছে।

ফ্রান্সভিত্তিক সংবাদ বিষয়ক ওয়েবসাইট মাঘরেব ইনটেলিজেন্স জানায়, ইসরাইলের সঙ্গে আমিরাতের স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপনের নিন্দা জানিয়েছিলেন আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট আবদুল মাজিদ তিব্বোউনে। তারপর সেপ্টেম্বর থেকে দেশটিকে সতর্ক করার পাশাপাশি অব্যাহতভাবে নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে আমিরাত।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরাইলের সাথে স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপনের বিষয়ে আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্টের সমালোচনাকে সরাসরি বৈরিতা হিসেবে দেখছে আরব আমিরাত। প্রতিক্রিয়ায় কূটনৈতিক চ্যানেলে অনানুষ্ঠানিক ভাবে নিজেদের নাখোশের বিষয়টি আলজেরিয়াকে জানিয়েছে আবুধাবি।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, জেনারেল আবদুল গনি র‌্যাচিদির মাধ্যমেও অনানুষ্ঠানিক কূটনৈতিক পর্যায়ে আলজেরিয়াকে একটি চিঠি পাঠিয়েছে আমিরাত। আবদুল গনি চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত দেশটির প্রধান পুলিশ বাহিনী ন্যাশনাল সিকিউরিটি বিভাগের মহাপরিচলক ছিলেন। একসময় আবুধাবিতে আলজেরিয়ার সামরিক বাহিনীর নেতৃত্বে ছিলেন তিনি।

চিঠিতে আবুধাবি জানায়, আলজেরিয়া যদি ওই অঞ্চলে আমিরাতবিরোধী জোটের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখে তাহলে দেশটির বিরুদ্ধে রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে দ্বিধা করবে না আবুধাবি।

জানা যায়, নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়ে পাঠানো আরব আমিরাতের এই চিঠির কথা আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট আবদুল মাজিদ তিব্বোউনে জানান জেনারেল আবদুল গনি। তবে সেসময় প্রেসিডেন্ট আবদুল মাজিদ কোনো মন্তব্য করেননি।

উল্লেখ্য, আলজেরিয়ার সাবেক সামরিক নেতা আহমেদ জায়েদ সালাহ’র শাসনামলে দেশটির সাথে আরব আমিরাতে ব্শে সুসম্পর্ক বিদ্যমান ছিল। তবে নির্বাচনে জিতে আবদুল মাজিদ তিব্বোউনে আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর দেশ দুটির মধ্যকার সুসম্পর্কে ভাটা পড়ে।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ সেপ্টেম্বর বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত আনুষ্ঠানিকভাবে মুসলমানদের প্রকাশ্য শত্রু দখলদার ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে। সংযুক্ত আরব আমিরাত আর বাহরাইন ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার মাধ্যমে বাণিজ্য চালু করা, নিরাপত্তা ও পর্যটনের ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য একটি সমঝোতা করে। ওই সমঝোতাকে প্রতারণা বলে বর্ণনা করেছেন ফিলিস্তিনি নেতারা। সূত্র : ডেইলি সাবাহ

এনএইচ/

মন্তব্য করুন