কারাবাখ নিয়ে পুতিন-এরদোগান ফোনালাপ

প্রকাশিত: ৯:৫৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০

আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার সংঘাত নিরসন ও নগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে স্থায়ী স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় একটি ‘যৌথ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র’ চালুর উদ্যোগ নিয়েছিল তুরস্ক ও রাশিয়া। দ্রুত এ উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা নিয়ে সম্প্রতি রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথা বলেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, গতকাল মঙ্গলবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ফোন করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইযেব এরদোগান। তারা নগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে ‘যৌথ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র’ প্রতিষ্ঠা নিয়ে কথা বলেন।

তুরস্কের যোগাযোগ অধিদপ্তর এক বিবৃতিতে জানায়, পুতিনকে ফোনে এরদোয়ান বলেন, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যকার সংঘাত নিরসনে ও নগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে স্থায়ী স্থিতিশীলতা আনতে দ্রুত পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠা ও এর কার্যক্রম সক্রিয় করা প্রয়োজন।

শিগগিরই পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রটি কার্যক্রম শুরু করবে বলে আশবাদ ব্যক্ত করেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট।

চলতি বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে নগার্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে প্রতিবেশী দুই দেশ আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া।

প্রায় ৪৪ দিন ধরে চলা এই যুদ্ধে ইয়েরেভানের কাছ থেকে ৩০০টির বেশি বসতি ও এলাকা দখলমুক্ত করে বাকু। পরে চলতি মাসের ১০ তারিখ রাশিয়ার মধ্যস্থতায় শান্তি চুক্তি করে দুই দেশ।

পাশাপাশি নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে আজারবাইজানের ভূখণ্ডে যৌথ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার সমঝোতা স্বাক্ষর করে তুরস্ক ও রাশিয়া।

আই.এ/

মন্তব্য করুন