কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করবেন আপনার রাগ!

প্রকাশিত: ১২:১৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০২০

ইউসুফ পিয়াস:

মানুষের স্বাভাবিক অনুভূতিগুলোর একটি হলো রেগে যাওয়া; যা কমবেশি প্রতিটি মানুষেরই থাকে। তবে প্রকাশ মানুষ ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে। অতিরিক্ত রাগ ক্রোধ ভালো নয় এর ফলে নিজের কিংবা অন্যের জন্য ক্ষতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।

রাগ মানবিক আবেগের একটি অংশ বিশেষ। তবে অনিয়ন্ত্রিত রাগ মারাত্মক ক্ষতিকারক। মনোবিজ্ঞানীদের মতে, কোনো কোনো মানুষ দ্রুত রেগে যায় এবং তাদের রাগও প্রচন্ড। এমনকি এ সমস্ত মানুষগুলো রেগে গিয়ে গালিগালাজও শুরু করে , এক পর্যায়ে মানুষের সঙ্গে মেলামেশাও বাদ দিয়ে দেই ওরা। এ ধরনের ব্যক্তিরা রাগের কারণে নানা দৈহিক রোগেও আক্রান্ত হতে পারে। তাই রাগ নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি। রাগ নিয়ন্ত্রণের বিশেষজ্ঞরা বিভিন্ন পন্থার কথা বলেছেন।

রাগ সম্পর্কে রাসূল সা: এর বিভিন্ন হাদিস রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হলো হযরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবী (সা.)-কে বলল, ‘আমাকে উপদেশ দিন।’ তিনি বললেন, ‘রাগ কোরো না।’ সে ব্যক্তি কয়েকবার এ কথা বলল, রাসুলুল্লাহ (সা.) বললেন, ‘রাগ কোরো না।’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৬১১৬)

জেনে নিন রাগ নিয়ন্ত্রণের কিছু উপায়:

অজু করে নিন: যখন আপনার মনে রাগ সৃষ্টি হবে তখন আপনি অজু করে নিন। তাহলেই কমে যাবে আপনার রাগ। এ বিষয়ে  নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেন, ‘নিশ্চয় রাগ শয়তানের পক্ষ থেকে। আর শয়তান আগুনের তৈরি। নিশ্চয় পানির দ্বারা আগুন নির্বাপিত হয়। সুতরাং তোমাদের কেউ যখন রাগান্বিত হয় সে যেন অজু করে।’ (সুনানে আবি দাউদ, হাদিস : ৪৭৮৬)

কথা বন্ধ রাখুন:  হঠাৎ করে রাগের মাথায় কোনো কথা বা কাজ করে বসবেন না সময় নিয়ে প্রয়োজন হলে সেই ব্যক্তির সাথে কিছুক্ষণ কথা বন্ধ রাখুন অথবা রাগের কারণটি থেকে নিজের মনকে অন্যদিকে সরিয়ে নিন।

মন শান্ত রাখুন: মনকে যতটা সম্ভব শান্ত রাখার চেষ্টা করুন।  মস্তিষ্কের অন্যদিকে বা অন্য কাজে ব্যস্ত রাখুন এটা রাগ কমাতে সাহায্য করে।

রাগের কারণ ঠিক করুন:  অমরা অনেক সময় রাগ করি ঠিক কিন্তু কোন কারণে রাগ করি তা খুঁজে পায়না। তাই আপনি যখন শান্ত হয়ে যাবেন, আপনার রাগের কারণ গুলো তার সামনে তুলে ধরুন, ততক্ষণে আপনজনের মাথাও ঠান্ডা হয়ে যাবে, তিনি ভালোভাবে আপনার কথা বুঝতে পারবেন।

এক্সারসাইজ করুন: আপনার যখন রাগ উঠবে তখন এক্সারসাইজ করতে থাকুন। নিয়মিত এক্সারসাইজে আপনার রাগের প্রবণতা কমে যাবে।

ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করুন: যেকোন সমস্যার সমাধান আছে। একটু ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করলেই সেটা বের করা যায়।  সেটাই চেষ্টা করুন।

হাসিখুশি থাকুন:  রাগ বা টেনশন কমানোর জন্য খানিকটা হাসি ঠাট্টা করুন । হাসির মাধ্যমে আপনার মনটা হালকা হতে পারে আর মন হালকা থাকলে কখনো রাগ  আসবে না। সবচেয়ে ভালো উপায় হলো নিয়মিত মেডিটেশন। এতে শরীরের জন্য উপকারের সাথে সাথে রাগও নিয়ন্ত্রণ হয়।

ভাব বিনিময় করুন: সহকর্মীসহ সবার প্রতি সহানুভূতিশীল হোন। এবং তাদের সাথে ভাব বিনিময়ে স্পষ্টতা অবলম্বন করুন এতে আপনার রাগ অনেকটায় কমে যাবে।

রাগ হলো বারুদের গুদামের মতো। আগুনের স্ফূলিঙ্গের ছোয়ায় সব কিছু ধ্বংস করে দিতে পারে এই রাগ। তাই সবার ‍উচিৎ উপরের পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে হলেও নিজের রাগ নিয়ন্ত্রণ করা ।

ওয়াইপি/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন