বিশ্ব মুসলিমদের নিকট প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে ম্যাক্রোর: খেলাফত আন্দোলন

প্রকাশিত: ১০:০০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩০, ২০২০

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী ফ্রান্স এর প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোর মুসলিম বিদ্বেষী বক্তব্য ও রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেছেন, ফরাসী সরকার রাষ্ট্রীয় ভাবে ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী চরম উত্তেজনা ও বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে।

সে দেশের একটি রম্য সাময়িকী বিশ্ব শান্তির দূত হযরত মুহাম্মদ সা, এর ব্যঙ্গচিত্র প্রচার করে বিশ্বের ২০০ কোটি মুসলমানের অন্তরকে ব্যথিত করেছে। ফ্রান্স সরকার প্রকাশ্যে মুসলমানদের নিকট ক্ষমা চাইতে হবে।

অন্যথায় সারাবিশ্বের নবীপ্রেমিক মুসলমানেরা ফ্রান্সের পণ্য বর্জন অব্যাহত রাখবে। ভারত সরকার ফ্রান্সের এ ধৃষ্টতা সমর্থন করায় ভারতীয় পণ্য বর্জনেরও আহবান জানান তিনি। সমাবেশে তিনি আগামী ২রা নভেম্বর সোমবার হেফাজত ইসলাম ঘোষিত ফ্রান্স দুতাবাস ঘেরাও কর্মসূচী সফল করার আহবান জানান।

মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী বলেন, বাক স্বাধীনতার নামে কোন জাতির ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অধিকার কারো নেই। ফ্রান্সে প্রকাশিত ব্যঙ্গচিত্র বিশ্ব মুসলিমের সাথে যুদ্ধ ঘোষণার শামীল। ইতিমধ্যেই ফ্রান্সের বিরুদ্ধে সারা বিশ্বে প্রতিবাদের যে ঝড় উঠেছে তা সহজেই থামবে না।

মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেন, কটি কটি মুসলমানদের প্রতিবাদই প্রমান করে মুসলমানেরা নবী মুহাম্মদ সা. কে প্রাণের চেয়েও বেশি ভালবাসে। নবীর জন্য জীবন দিতে লাখো আশেক প্রস্তুত রয়েছে। ফ্রান্স এবং তার দোসরদের শায়েস্তা করতে পণ্য বর্জনসহ প্রয়োজনে মুসলমানেরা জিহাদের ডাক দিবে ইনশাআল্লাহ। তিনি মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে ফ্রান্সকে বয়কট করার আহ্বান জানান।

মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন বলেন, ফ্রান্স সরকার নবীর বিরুদ্ধে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের মাধ্যমে বিশ্বমুসলিমকে উস্কে দিয়ে বিশ্বজুড়ে ধর্মযুদ্ধ বাধানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। আল্লাহ-রাসূল সা.এর বিরুদ্ধে ধৃষ্টতা দেখালে কাউকে বিনা চ্যালেঞ্জে ছেড়ে দেয়া হবে না। তিনি অবিলম্বে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে ফ্রান্সে মহানবী মুহাম্মদ সা.এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করার দাবি জানান।

মাওলানা সাইফুল ইলাম সুনামগঞ্জী বলেন, ফ্রান্স সরকারকে অবিলম্বে এ ধৃষ্টতাপূর্ণ ব্যঙ্গচিত্র প্রচারনা বন্ধ করতে হবে। অন্যথায় ফ্রান্সের বিরুদ্ধে সারাবিশ্বে জিহাদের দাবানল ছড়িয়ে পরবে এবং নবীপ্রেমিকরা ফ্রান্সের পন্যবর্জন করতে বাধ্য হবে। সমাবেশে বক্তারা প্রত্যেক মুসলমানের উচিত ঈমানী দাবিতে ফ্রান্স-ভারতসহ ইসলামের দুশমনদের পণ্য বর্জন করা এবং তাদের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ অব্যাহত রাখার আহবান জানান।

আজ শুক্রবার বাদ জুমা রাজধানীর লালবাগ-কামরাঙ্গীরচর বেড়িবাধেঁ ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয়ভাবে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা.এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদ ও ফ্রান্সের পণ্য বর্জণের দাবিতে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কামরাঙ্গীরচর জোন ঢাকা এর উদ্যোগে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কামরাঙ্গীরচর জোন এর সভাপতি মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, হেফাজত ঢাকা মহনগর যুগ্ম সম্পাদক ও খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দীনসহ মুফতি আব্দুল হাফিজ, মুফতি আব্দুল্লাহ ইয়াহইয়া, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মুফতি জসিম উদ্দিন, মুফতি আ ফ ম আকরাম হুসাইন, , মুফতি আব্দুর রহমান বেতাগী, মুফতি হাবীবুর রহমান, মুফতি খায়রুজ্জামান হুযাইফী, মুফতি আমানুল্লাহ বসন্তপুরী, মুফতি সাইফুল্লাহ নোমানী, মুফতি আমীনুল ইসলাম, মুফতি সালীমুল্লাহ খান, মাওলানা হামীদুল হক ও মুফতি আরিফ আহমাদ প্রমূখ।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন