বিশ্বব্যাপী ক্ষুব্ধ মুসলিমরা, ম্যাক্রোঁকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান লিবিয়ার

প্রকাশিত: ৬:০২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৭, ২০২০

ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয়ভাবে ইসলামের অবমাননা করা হয়েছে। কারণ যখন মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর কার্টুন আঁকা হলো তখন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বললেন, এই কার্টুন প্রদর্শন অব্যাহত রাখা হবে, কারণ এটি তার দেশের মতপ্রকাশের স্বাধীনতার অংশ।

এমন বক্তব্যের জেরে বিশ্বব্যাপী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে মুসলমানরা। লিবিয়ার সরকার ম্যাক্রোঁকে মুসলমানদের কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

লিবিয়ার জাতীয় ঐকমত্য সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল সোমবার আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়ে এই আহ্বান জানানো হয়েছে। সেই সাথে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের গর্হিত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানানো হয়।

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মুহাম্মদ আল কাবলাবি বলেছেন, রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের জন্য প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ এমন অবমাননাকর বক্তব্য দিয়েছেন। আমরা তা প্রত্যাহার করে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাই।

মুহাম্মদ আল কাবলাবি আরো বলেন, মহানবী (সা.) এর প্রতি অবমাননাকর বক্তব্য দেওয়াকে বাক-স্বাধীনতা বলছেন ম্যাক্রোঁ, যেটি তার অজ্ঞানতা ছাড়া আর কিছু নয়।

আমি ম্যাক্রোঁকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, ২০১৮ সালে দেয়া ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালতের এক রায়ে বলা হয়েছে, মহানবীকে (সা.) অবমাননা করা বাক-স্বাধীনতা নয়। তাই ম্যাক্রোঁকে ক্ষমা চাইতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) এর কার্টুন দেখিয়ে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ব্যাখ্যা করার দায়ে প্যারিসে স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি হত্যার পর থেকেই দেশজুড়ে চরমপন্থী মুসলিমদের বিরুদ্ধে অপারেশন ও তদন্ত শুরু করেছে ফরাসি পুলিশ।

বিভিন্ন মুসলিম সংগঠনের কার্যকলাপ তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি মসজিদ।

আই.এ/

মন্তব্য করুন