‘ইরান ও রাশিয়ার হাতে যুক্তরাষ্ট্রের ভোটার তথ্য’

প্রকাশিত: ১১:২৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রের ডিরেক্টর অব ন্যাশনাল ইন্টেলিজেন্স জন র‍্যাটক্লিফ এর দাবি করছেন, ‘ইরান ও রাশিয়ার হাতে যুক্তরাষ্ট্রের কিছু ভোটারের রেজিস্ট্রেশন-সংক্রান্ত তথ্য চলে গেছে।’ আজ বৃহস্পতিবার বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

এছাড়া ডেমোক্রেটিক ভোটারদের হুমকিমূলক ই-মেইল পাঠানোর পেছনেও ইরানের হাত রয়েছে বলে জানিয়েছেন জন র‍্যাটক্লিফ। তবে রাশিয়ার দিক থেকে এসব করা না করা হলেও রাশিয়ার হাতেও মার্কিন ভোটার রেজিস্ট্রেশনের তথ্য রয়েছে, এমন তথ্য জানিয়েছেন র‍্যাটক্লিফ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাত্র ১৩ দিন আগে এমন তথ্য জানাল দেশটির জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

ট্রাম্পের পক্ষ নিয়ে প্রাউড বয়েজ নামে পাঠানো ই-মেইলগুলোতে ‘অস্থিতিশীলতা উসকে’ দেওয়া বক্তব্য ছিল বলে জানান জন র‍্যাটক্লিফ। ভোটারদের প্রভাবিত করতে এগুলো পাঠানো হচ্ছে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বেকায়দায় ফেলতেই এসব করা হচ্ছে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের।

ট্রাম্প প্রশাসনের শীর্ষস্থানীয় গোয়েন্দা কর্মকর্তা জন র‍্যাটক্লিফ বলেন, ‘রাশিয়া ও ইরানের হাতে যেসব তথ্য রয়েছে, সেগুলো ভুয়া তথ্য ছড়িয়ে ভোটারদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কাজে ব্যবহৃত হতে পারে।’

জন র‍্যাটক্লিফের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে যুক্ত হন যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইর পরিচালক ক্রিস্টোফার রে। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী ব্যবস্থা এখনো নিরাপদ। ভোটারদের ভোট গোনায় ধরা হবে।

এর আগে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো জানায়, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মদদপুষ্ট হ্যাকাররা সাইবার হামলা করে এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া খবর ছড়িয়ে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে লেগেছিল। তবে ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সিস্টেম হ্যাক করতে সক্ষম হয়নি।

এনএইচ/

মন্তব্য করুন