নাইজেরিয়ায় বিক্ষোভ; সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত ২০

প্রকাশিত: ৩:০৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

নাইজেরিয়ার লাগোসে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে বহু মানুষ হতাহত হয়েছে। দেশটিতে পুলিশের নৃশংসতার বিরুদ্ধে স্থানীয় মানুষজন ওই বিক্ষোভ করছিল। একজন প্রত্যক্ষদর্শী বিবিসিকে জানিয়েছে, তিনি অন্তত ২০ জনের লাশ গুনেছেন।

এছাড়া আরও কমপক্ষে ৫০ জন আহত হয়েছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলছে, তার মৃত্যুর বিষয়ে বিশ্বাসযোগ্য খবর পেয়েছে। খবর বিবিসির।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, উর্দি পরা ব্যক্তিরা লাগোসের ধনী শহরতলী লেক্কিতে মঙ্গলবার গুলি ছোড়ে। বিবিসির নাইজেরিয়া সংবাদদাতা নোয়েনি জোন্স বলেছেন, গুলির আগে বিক্ষোভ এলাকায় ব্যারিকেড দেয় সেনাবাহিনী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, স্থানীয় সময় পৌনে ৭টায় সেনাবাহিনী আমাদের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে সরাসরি আমাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। তিনি বলেন, তারা গুলি ছুড়তে ছুড়তে আমাদের দিকে এগিয়ে আসে। এটা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি ছিল। আমাদের পাশে থাকা একজনের গায়ে গুলি লাগে। তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

এদিকে গুলির ঘটনা তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। গুলির ঘটনার পরপরই লাগোস এবং অন্যান্য অঞ্চলে ২৪ ঘণ্টার অনির্দিষ্ট কারফিউ জারি করা হয়েছে। সম্প্রতি বাতিল হওয়া পুলিশ ইউনিট স্পেশাল অ্যান্টি-রবারি স্কোয়াড (সার্স)-র বিরুদ্ধে দুই সপ্তাহ ধরে নাইজেরিয়ায় বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অন্যদিকে লাগোসে গুলিবর্ষণের ঘটনায় প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে টুইট করেছেন সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। এসময় তিনি নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারি এবং সেনাবাহিনীর প্রতি ‘বিক্ষোভকারীদের হত্যা বন্ধের’ আহ্বান জানান।

আই.এ/

মন্তব্য করুন