বগুড়ায় সাবেক ইউপি সদস্যের রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা (৫২) নামে আওয়ামী লীগের এক নেতাকে হাত-পায়ের রগ কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার (২১ অক্টোবর) সকালে উপজেলার পশ্চিম জাহাঙ্গীরাবাদ গ্রামে নিহতের বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড় থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তা শিবগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম জাহাঙ্গীরাবাদ গ্রামের মৃত আকবর আলীর ছেলে। তিনি শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য এবং এ ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য ও এমএবি ইট ভাটার মালিক ছিলেন।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যার পর তিনি বাড়ি থেকে এক কিলোমিটার দূরে আলাদীপুরে তার ইট ভাটায় যাওয়ার কথা বলে বের হন। রাত ২টা পর্যন্ত মোস্তার স্ত্রী তার মোবাইলে ফোন করলেও সেটি কেউ রিসিভ করেনি। এরপর বুধবার সকালে বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড়ে মোস্তার গলাকাটা মরদেহ দেখতে পান প্রতিবেশীরা। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহটি উদ্ধার করে।

তবে পুকুর পাড়ে মরদেহ পাওয়া গেলেও সেখানে তাকে হত্যা করার কোন আলামত নেই। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে অন্য কোথাও হত্যা করে মরদেহ তার বাড়ির কাছে পুকুর পাড়ে ফেলে রাখা হয়। নিহতের হাত-পায়ের রগ কাটা ছাড়াও মাথায় আঘাতের চিহ্ন এবং পা ভাঙ্গা ছিল।

স্থানীয় সূত্র জানান, মোস্তা এক সময় অপরাধ জগতের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। সেসময় তার নামে ছিনতাই, ডাকাতি, চোরাকারবারী ছাড়াও বিভিন্ন অভিযোগে একাধিক মামলা ছিল। পরবর্তীতে তিনি ওই জগত থেকে বেরিয়ে বালুর ব্যবসা শুরু করেন। গত ১০ বছরের মধ্যে তিনি এলাকায় বালুর ব্যবসা করে ইট ভাটার মালিক হন। এছাড়াও তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হয়ে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য হন।

শিবগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী জানান, তাৎক্ষনিকভাবে হত্যার কারণ জানা যায়নি। মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, হত্যাকান্ডের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেই সঙ্গে এই ঘটনায় জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

ওয়াইপি/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন