এমসি কলেজে তরুণীকে গণধর্ষণ: মোট ৬ আসামি গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১১:২০ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

সিলেটে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় আরও দুই আসামি রনি ও রবিউল হাসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার রাতে হবিগঞ্জ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এদিকে, ফেঞ্চুগঞ্জ থেকে রাজন ও আইনুল নামে আরও দুজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ নিয়ে এজাহারভুক্ত চার আসামিসহ মোট ছয়জনকে গ্রেফতার করলো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী।

পুলিশ জানায়, রোববার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শায়েস্তাগঞ্জ এলাকায় রনির অবস্থান নিশ্চিত হয়ে সেখানে অভিযান চালানো হয়। এরপর একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। একই সময় নবীগঞ্জের অপর একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয় আরেক আসামি রবিউল হাসানকে।

এদিকে, সোমবার সকালে রাজন ও আইনুলকে ফেঞ্চুগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

এর আগে, রোববার রাতে প্রধান আসামি সাইফুর ও আরেক আসামি অর্জুন লস্করকেও গ্রেফতার করা হয়। রোববার সকাল ৮টার দিকে সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা নোয়ারাই খেয়াঘাট থেকে মামলার প্রধান আসামি সাইফুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। এছাড়া হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মনতলা সীমান্ত এলাকা থেকে জকিগঞ্জের আটগ্রামের কানু লস্করের ছেলে অর্জুন লস্করকে গ্রেফতার করেছে সিলেট জেলা পুলিশ।

জানা গেছে, স্বামীকে নিয়ে ঘুরতে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় এমসি কলেজে গিয়েছিলেন এক গৃহবধূ। এ সময় কলেজ ক্যাম্পাস থেকে পাঁচ থেকে ছয়জন তাঁদের জোরপূর্বক কলেজের ছাত্রাবাসে নিয়ে যান। সেখানে একটি কক্ষে স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে গণধর্ষণ করেন তাঁরা। পরে ওই গৃহবধূকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এনএইচ/

মন্তব্য করুন