তুরস্ক বিশ্বে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার কাজ করছে : এরদোগান

প্রকাশিত: ১:৩৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০

তুরস্কের বৈদেশিক নীতির সমালোচনা করে ফ্রান্সের দেওয়া এক বক্তব্যের বিরোধিতা করে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান বলেন – ‘তুরস্ক বিশ্বের যতগুলো দেশে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে অংশ নিয়েছে সবগুলোই ন্যায় বিচারের জন্য। তুরস্ক সব সময় ন্যায়বিচারের পক্ষে লড়াই করছে।”

তুরস্কের বৈদেশিক নীতির সমালোচকদের আঙ্কারাকে অভিযুক্ত করা বন্ধ করা উচিত এবং পরিবর্তে এই অঞ্চলে যে যুদ্ধ পরিস্থিতি রয়েছে তার বিরোধিতা করা উচিত যাতে তুরস্কের পক্ষে শান্তি ও ন্যায়বিচারকে প্রতিষ্ঠিত করা সহজ হয়। বলেছেন এরদোগান।

বৃহস্পতিবার রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান রাজধানী আঙ্কারায় দলীয় সদর দফতরে ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (একে) পার্টির প্রাদেশিক প্রধানদের সাথে এক আলোচনায় এসব কথা বলেছেন।

‘সিরিয়া, লিবিয়া, পূর্ব ভূমধ্যসাগর, আফ্রিকা, বালকান, ককেশাস এবং মধ্য এশিয়ায় কেন তুরস্ক জড়িত?” এ প্রশ্ন যারা করে তাদের লক্ষ করে তিনি বলেন –  “তুরস্ক এসব অঞ্চল থেকে সরে আসলে সিরিয়াসহ এসব দেশ কি শান্তি ও স্বাধীনতা উপভোগ করবে?

“যদি তুরস্ক লিবিয়ায় যা ঘটছে তার দিকে মুখ ফিরিয়ে রাখে, তাহলে কি সাম্রাজ্যবাদীরা বৈধ সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন?” প্রশ্ন রাখেন তিনি।

পূর্ব ভূমধ্যসাগর এবং অন্য বিভিন্ন দেশে তুরস্কের বৈদেশিক নীতি ও লক্ষ্যকে আটকানোর চেষ্টা করছেন দাবি করে এরদোগান ফরাসী রাষ্ট্রপতি ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে উল্লেখ করে বলেন: “তুরস্ক পিছিয়ে গেলে ফ্রান্স কি এসব অঞ্চলে সৃষ্ট রাজনৈতিক অস্থিরতা শেষ করে ফিরে যাবে?”

তিনি বলেন “এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর যদি বাস্তববাদী এবং আন্তরিক ‘হ্যাঁ’ দিয়ে দেওয়া যায় তবে আমাদের যে নীতি অনুসরণ করা হয় তা পর্যালোচনা করা আমাদের জন্য প্রয়োজনীয় হয়ে উঠবে,” বলেছেন এরদোগান।

এরদোগান আরও বলেন যে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন তুরস্কের বিরুদ্ধে তার দ্বৈত নীতি ত্যাগ করবে।

মন্তব্য করুন