মিশরে মুসলিম ব্রাদারহুডের সর্বোচ্চ নেতাসহ ১২ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত: ৪:১২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

মিশরের বৃহত্তম ইসলামপন্থি সংগঠন মুসলিম ব্রাদারহুডের সর্বোচ্চ নেতা মোহাম্মাদ বাদিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত।

এ ছাড়া দলটির আরো দুই নেতাসহ মোট ১২ জনের এই সাজা দেওয়া হয়েছে। কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, গতকাল শনিবার মিশরের বন্দরনগরী পোর্ট সাঈদ’র একটি ফৌজদারি আদালতের বিচারক সামি আব্দের রহিম এ রায় দেন।

আদালত সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পোর্ট সাঈদে ২০১৩ সালে যে সহিংসতা হয়েছিল, মোহাম্মাদ বাদি তাতে জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে। আর সেই অভিযোগেই তাকে এই দণ্ড দেয়া হয়। এদিন মুসলিম ব্রাদারহুডের আরো দুই নেতাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

তারা হলেন- মোহাম্মাদ আল-বালাতাজি এবং সাফওয়াত আল-হিজাজি। সেইসঙ্গে সংগঠনটির আরো ৯ জনকে একই দণ্ড দেওয়া হয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, একই মামালায় অপর ৫৭ জন অভিযুক্তকে তিন বছর করে কারদণ্ড দিয়েছে পোর্ট সাঈদের ওই আদালত।

মিশরের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসি ২০০৩ সালে এক সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে দেশটির প্রথম নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করেন। ওই সময় মিশরের সেনাপ্রধান ছিলেন সিসি। ওই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ব্রাদারহুডের হাজার হাজার নেতাকর্মী সে সময় রাস্তায় নেমে আসেন। কিন্তু সিসির নির্দেশে সেনারা তাদের কঠোর হাতে দমন করে। এতে সারাদেশে ব্যাপক দাঙ্গা ও সহিংসতা দেখা দেয়। ওই সময় সেনা অভিযানে ব্রাদারহুডের অসংখ্য নেতাকর্মী হতাহত হলেও ওই সহিংসতার জন্য সংগঠনটিকেই দায়ী করে সিসি সরকার।

আই.এ/

মন্তব্য করুন