উত্তরবঙ্গে বন্যাকবলিতদের মাঝে ‘রাবেতাতুল ওয়ায়েজীনের’ ত্রাণ বিতরণ

প্রকাশিত: ৩:২১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০২০

ওয়াজ মাহফিলে দ্বীনের দাওয়াত দেওয়া দেশের একঝাক ওয়ায়েজিনদের নিয়ে গঠিত রাবেতাতুল ওয়ায়েজীনের দায়িত্বশীলদের উদ্যোগে দেশের উত্তরাঞ্চলে বন্যাকবলিত মানুষদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

২৩ আগস্ট রবিবার উত্তরাঞ্চলের বগুড়া এলাকায় ও সিরাজগঞ্জে বন্যাকবলিত অসহায় মানুষদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেছেন রাবেতার নেতৃবৃন্দ।

রাবেতাতুল ওয়ায়েজীনের উপদেষ্টা মাওলানা মামুনুল হক ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের সম্পর্কে বলেন –

বগুড়ার সারিয়াকান্দি থানার যমুনা নদীর ভাঙন কবলিত চন্দন বাসাইল ইউনিয়নের বণ্যাকবলিতদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে৷ চন্দন বাসাইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন দুলালের সহযোগিতায় এ সময় ত্রাণ বিতরণ করা হয়। এখানে ১টি গ্রাম বাদে ২৬ গ্রামের সবগুলোই যমুনার গর্ভে বিলীন হওয়া চন্দন বাসাইল ইউনিয়ন গৃহহীন মানুষদের আবাসস্থল৷

এরপর রাবেতার উদ্যোগে তিনবার নদীভাঙ্গণের শিকার স্থানীয় একটি কওমী মাদরাসা পরিদর্শন করে এবং কিছু আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়৷

এরপর সিরাজগঞ্জের কাজিপুর থানার বন্যা কবলিত ভেওয়ামারায় সিমলার মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়৷ সেখানে প্রায় দেড়শ পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয় ত্রাণসামগ্রী ৷

বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন – রাবেতার সভাপতি মাওলানা আব্দুল বাসেত খান, উপদেষ্টা মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ূবী, মহাসচিব মাওলানা হাসান জামীল, মাওলানা মুস্তাকীম বিল্লাহ হামিদী, মাওলানা রাফি বিন মুনির, মাওলানা মাহমুদুল হাসান আশরাফী, মাওলানা দেলোয়ার হোসাইন মাইজী, মাওলা মাসউদুর রহমান আইয়ূবীসহ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

এছাড়াও নেতৃবৃন্দ বগুড়ার জামিয়া রাহমানিয়া দারুল উলুম মাদানীনগর মাদ্রাসা পরিদর্শন করেন এবং সেখানে আয়োজন করা হয় রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ জোন সম্মেলনের ৷

উত্তরবঙ্গের রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ষোলটি জেলা থেকে জড়ো হন প্রতিনিধিবৃন্দ৷ ভাবগম্ভীর পরিবেশে রাবেতার লক্ষ্য-উদ্দেশ্যের উপর আলোকপাত শেষে পনেরো জেলা-আহ্বায়কের নাম ঘোষণা করা হয় ৷

এছাড়াও কেন্দ্রীয় দায়িত্বশীলদের এই ত্রাণ তৎপরতার বাইরে উত্তরবঙ্গের আরও চারটি জেলায়  রাবেতার পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণের উগ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে৷ পাবনা, গাইবান্ধা, ঠাকুরগাঁ ও লালমনিরহাটে বন্যা কবলিত মানুষের মাঝে রাবেতার জেলা প্রতিনিধিদের মাধ্যমে বিতরণ হবে এই ত্রাণ৷  উত্তরবঙ্গ জোনের প্রতিনিধি সম্মেলন ও ত্রাণ কার্যক্রম উত্তরবঙ্গজুড়ে আলেম ও ওয়ায়েজদের মধ্যে কর্মচাঞ্চল্য তৈরি করেছে বলেই মনে করছেন রাবেতার নেতৃবৃন্দ।

প্রসঙ্গত : প্রতিনিধিত্বশীল তরুণ আলেমদের নিয়ে দেশের সকল ওয়ায়েজদের ঐক্যবদ্ধ করে এক প্লাটফর্মে আনার লক্ষ্যে ২০১৮ সালের ২০ এপ্রিল গঠন করা হয় ‘ইত্তেফাকুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠন। দেশের পরিচিত প্রসিদ্ধ অনেক ওয়ায়েজ যুক্ত ছিলেন এ সংগঠনের সাথে। তখন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে মুফতী উমর ফারুক যুক্তিবাদী ও নির্বাহী সভাপতি মাওলানা ইসমাইল হোসেন সিরাজী ও কেন্দ্রীয় মহাসচিব হিসেবে মাওলানা ইউসুফ বিন এনাম শিবপুরী দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

পরবর্তিতে ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সালে সংগঠনের পরিসর বাড়িয়ে কাজকে আরও বেগবান করার লক্ষ্যে নাম বদল করে রাখা হয় ‘রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশ’। এদিন রাজধানীর প্রেসক্লাব সংলগ্ন বিএমএ মিলনায়তনে দিনব্যাপী ‘ওয়ায়েজ, খতীব ও দায়ী ওলামায়ে কেরামের করণীয়’ শীর্ষক কর্মশালা পালন করা হয়। একই দিন সংগঠনটির পুরোনো কমিটি ভেঙে মাওলানা আব্দুল বাসেত খান সিরাজীকে সভাপতি ও মাওলানা হাসান জামিলকে সেক্রেটারি করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়াও ‘রাবেতাতুল ওয়ায়েজীন বাংলাদেশ’র উপদেষ্টা হিসেবে রয়েছেন মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, মাওলানা নাজমুল হাসান, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী, মাওলানা হামিদ জাহেরীসহ প্রমুখ ওলামায়ে কেরামগণ।

মন্তব্য করুন