আল্লামা মুনিরুজ্জামান সিরাজীর ইন্তেকালে চরমোনাই পীরসহ আলেমদের শোক প্রকাশ

প্রকাশিত: ৫:৪৯ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৯, ২০২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জামিয়া সিরাজিয়া ভাদুঘর মাদরাসার মুহতামিম আল্লামা মুনিরুজ্জামান সিরাজীর ইন্তেকালে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাইসহ দেশের বরেণ্য একাধিক আলেম ও ইসলামী রাজনৈতিক নেতারা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

পৃথক পৃথক শোক বিবৃতি প্রকাশ করেছেন ঢাকার জামিয়া নুরিয়া কামরাঙ্গীরচর মাদ্রাসার শাইখুল হাদীস, উপমহাদেশের অন্যতম হাদিস বিশারদ,আল্লামা সোলাইমান নোমানী, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই, একই দলের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, দলের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমানসহ আরও অনেক উলামায়ে কেরাম।

শোকবানীতে আল্লামা সোলাইমান নোমানী বলেন – তিনি ছিলেন দেশ ও জাতির একজন চৌকস অভিভাবক। এ দেশের মুসলিম উম্মাহর দুঃসময়ে সামনে থেকে নেতৃত্বদানকারী একজন অকুতোভয় সিপাহসালার। ইলমী মহল, রাজনীতির ময়দানসহ সর্বত্র তিনি ছিলেন সর্বজনস্বীকৃত একজন ব্যক্তিত্ব। তিনি ছিলেন সারা বাংলাদেশের ওলামা-মাশায়েখ ও ধর্মপ্রান মানুষদের মাথার মুকুট। উনার পিতা ছিলেন বাংলার কুতুব আল্লামা সিরাজুল হক বড় হুজুর। তিনি জীবনের সিংহভাগ তিনি হাদিসের খেদমত করে গেছেন।  শায়খ রহ. উপমহাদেশের শীর্ষ হাদিস বিশারদ ও আধ্যাত্মিক রাহবার। উনার ইন্তেকালে আধ্যাত্মিক জগতে এক বিশাল বিয়োগের সৃষ্টি হলো।  উনার বিয়োগে বাংলাদেশের আলেমসমাজ একজন অভিভাবক হারালেন। আল্লাহ এই আলেমকে জান্নাতুল ফেরদৌসের আ’লা মাকাম দান করুক,আমিন।

শোকবাণীতে চরমোনাই পীর সৈয়দ রেজাউল করীম বলেন, আল্লামা মনিরুজ্জামান রহ. দেশের ক্রান্তিকালে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতেন। তিনি বহু মাদরাসা, মসজিদসহ বহু মারকাজের সাথে জড়িত ছিলেন। শিরক, বেদআত ও ভ্রান্ত মতাদর্শেল বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভুমিকা পালন করেছেন। হযরতের ইন্তেকালে দেশবাসী একজন প্রথিতযশা আলেমেদীনকে হারালো। যার অভাব দীর্ঘদিন অনুভূত হবে। মহান রব্বুল আলামিন হযরতের সকল নেককাজকে কবুল করে জান্নাতের সর্বোচ্চ মর্যাদা দান করুন, আমীন।

শোকবানীতে অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, আল্লামা মনিরুজ্জামান রহ. দেশের ক্রান্তিকালে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একজন প্রতিবাদী কন্ঠ ছিলেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার পাত্র ছিলেন। তিনি বহু মাদরাসা, মসজিদ সহ বহু দ্বীনি মারকাজের সাথে জড়িত ছিলেন। শিরক, বেদআত ও ভ্রান্ত মতাদর্শের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভুমিকা পালন করেছেন। তিনি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দ্বিতীয় বড় হুজুর। তিনি বলেন – আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজীর ইন্তেকালে দেশবাসী একজন প্রথিতযশা আলেমেদ্বীনকে হারালো। যার অভাব দীর্ঘদিন অনুভূত হবে। মরহুম’র শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা ও ধৈর্য ধারণ আহবান করছি। মহান রব্বুল আলামিন হযরতের সকল নেককাজকে কবুল করে জান্নাতের সর্বোচ্চ মর্যাদা দান করুন, আমীন।

শোক প্রকাশ করেছে ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলা যুব আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ :

তার মৃত্যুতে ইসলামী যুব আন্দোলন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি মুফতি আশরাফুল ইসলাম বিলাল ও সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা সামছ্ আল ইসলাম ভূঁইয়া এক যৌথ বিবৃতিতে গভীর শোক প্রকাশ করেন।

প্রসঙ্গত : বি-বাড়িয়ায় ব্যাপক জনপ্রিয় ও সর্বজনশ্রদ্ধেয় আলেম আল্লামা মনিরুজ্জামান সিরাজী আজ (৯ আগষ্টট) দুপুরে ১২.২০ মিনিটে তার নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একজন প্রতিবাদী কন্ঠ ছিলেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসার পাত্র ছিলেন। তিনি বহু মাদরাসা, মসজিদ সহ বহু দ্বীনি মারকাজের সাথে জড়িত ছিলেন। শিরক, বেদআত ও ভ্রান্ত মতাদর্শের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভুমিকা পালন করেছেন। তিনি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দ্বিতীয় বড় হুজুর।

মন্তব্য করুন