বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে ইতোমধ্যে ৩০ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১:২০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২০

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটনায় ৩০ জনের মৃত্যু ও হাজারের বেশি লোকের আহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান। খবর লেবানন ভিত্তিক একটি সংবাদমাধ্যমের। তবে এ নিহতের সংখ্যা আরও বহুগুনে বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন অনেকেই।

অপরদিকে লেবানন রেডক্রস বলেছে – দেশটিতে ভয়াবহ এই বিস্ফোরণে আড়াই হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়েছে। নিহত এখনও নিরূপন করা যায়নি।

আজ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় লেবাননের রাজধানীতে এ বিস্ফোরণ ঘটে এবং এর প্রচণ্ডতায় পুরো বৈরুত শহর কেঁপে ওঠে। বৈরুত বন্দরে বিশাল বিস্ফোরণটি শহরজুড়ে প্রচন্ড কম্পনের সৃষ্টি করেছে যাতে, রাজধানীর বিভিন্ন অংশে বিল্ডিং ভেঙ্গে পড়েছে।

বিস্ফোরণের সঠিক কারণ তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার হয়ে যায়নি। লেবাননের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ ফাহমি বলেছেন, বন্দরের একটি গুদামে রাখা অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের কারণে এমনটি ঘটেছিল বলে মনে হয়।

বন্দর এলাকা ঘুরতে থাকা হেলিকপ্টার এই বিশাল আগুন নিভানোর চেষ্টা করছিল। হোটেল-ডিয়েউ হাসপাতালে, প্রবেশের চেষ্টা করা কয়েক ডজন মানুষকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিস্ফোরণে বহু ঘর-বাড়ির জানালা ভেঙে পড়ে এবং শত শত মানুষ আহত হয়েছে। বিস্ফোরণস্থলের লোকজন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও পোস্ট করেছেন তা পরিপূর্ণভাবে ও নিরপেক্ষভাবে এখনও যাচাই করা যায় নি।

তবে লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান জানিয়েছেন, বৈরুত বন্দর এলাকার এ বিস্ফোরণে বহু সংখ্যক মানুষ আহত হয়েছে। অপরদিকে মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ বাধিয়ে রাখা মোড়ল চালবাজ দেশ আমেরিকা বলেছে, তারা বিস্ফোরণের ঘটনা জানে এবং ঘনিষ্ঠভাবে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পোস্ট করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে- ব্যাপক মাত্রায় ধোঁয়ার কুন্ডুলি উঠছে। পরপর কয়েকটি বিস্ফোরণের চিত্রও দেখা গেছে।

অসমর্থিত খবরে বলা হয়েছে, সাবেক প্রধানমন্ত্রী সা’দ হারিরির বাড়ির কাছেও একটি বিস্ফোরণ ঘটেছে তবে মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিএনবিসি জানিয়েছে, সা’দ হারিরি অক্ষত আছেন।

মন্তব্য করুন