বাবরি মসজিদের স্থানে মন্দির নির্মানের কঠোর প্রতিবাদ খেলাফত আন্দোলনের

প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২০

বাবরি মসজিদের স্থানে অবৈধভাবে মন্দির নির্মাণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী।

তিনি বলেছেন, বর্তমান ভারত সরকার একটি সাম্প্রদায়িক সরকার। সাম্প্রদায়িক উগ্র হিন্দুত্ববাদী সরকার জোরপূর্বক এবং ক্ষমতার অপব্যবহার করে মসজিদ ভেঙ্গে মসজিদের জায়গায় মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে মুসলমানদের দিলে কুঠার আঘাত করেছে। মুসলিম বিশ্ব কখনো মোদির এ ঘৃনিত কাজকে বরদাশত করবে না। আল্লাহর ঘর মসজিদ যেখানে হয়, কিয়ামত পর্যন্ত সে জায়গা মসজিদের হুকুমেই থাকবে। মসজিদের স্থান পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই। শতবছর পরে হলেও মুসলমানরা তুরস্কের আয়া সুফিয়ার ন্যায় আবার বাবরি মসজিদের স্থানে মসজিদই নির্মাণ করবে ইনশাআল্লাহ। তিনি বাবরি মসজিদ রক্ষায় বিশ্বমুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকা রাখার আহবান জানান।

আজ বিকালে কামরাঙ্গীরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের এক বৈঠকে সভাপতির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, মাওলানা সাজেদুর রহমান ফয়েজী, মুফতি আফম আকরাম হুসাইন মাষ্টার আনসার উদ্দিন ও মুফতি আবুল হাসান প্রমুখ।

মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ আরো বলেন, শুধু বাবরী মসজিদ নয়, ভারতের বিভিন্ন স্থানে উগ্র হিন্দুরা অসংখ্য মসজিদ ভেঙ্গে তদস্থলে মন্দির নির্মাণ করছে, আর সরকার গুন্ডাদের ধন্যবাদ ও মদদ দিচ্ছে। যা মুসলিম বিশ্ব মেনে নিতে পারে না। সরকারের এ ঘৃনিত পদক্ষেপ ভারতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধাবে এবং মোদি ইতিহাসে কলঙ্কিত হয়ে থাকবে।

মসজিদের জায়গায় মন্দির হলে মোদি সরকারের পতন হবে এবং ভারত টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। হিন্দুত্ববাদের এ চক্রান্তের বিরুদ্ধে বিশ্ববাসিকে রুঁখে দাড়াতে হবে।

মন্তব্য করুন