চলছে বেফাকের রুদ্ধদ্বার বৈঠক : বরখাস্ত হতে পারেন পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক

বেফাক

প্রকাশিত: ১২:৫২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

একাধিক ফোনালাপ ফাঁস এবং বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ সমর্কে চলমান বিতর্কের মধ্যেই আজ বেফাকের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চলছে খাস কমিটির মিটিং।

আরও পড়ুন : বেফাকের ফোনালাপ ফাঁস ও মার্কশীট দুর্নীতি : ফেঁসে যেতে পারে শতাধিক মাদরাসা

সকাল ১০ টার কিছুক্ষন পরেই খাস কমিটির সদস্যরা একে একে বেফাক মহাসচিব আল্লামা কুদ্দুসের কক্ষে প্রবেশ করেন। এবং তিনিই আজকের বেফাকের এই জরুরী মিটিংয়ের সভাপতিত্ব করবেন বলে জানিয়েছেন একটি সূত্র। তবে আর একটি সূত্র বলেছেন – আজকের মিটিংয়ের সভাপতি মাওলানা নূর হোসাইন কাসেমীও হতে পারেন। কারণ আল্লামা আবদুল কুদ্দুস বিভিন্ন বিষয়ে অভিযুক্ত।

তবে অফিসের মধ্যের আলোচনা এবং কোন বিষয় সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে মিটিংয়ে বেফাকের খাস কমিটির বেশিরভাগ সদস্যরাই উপস্থিত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

বেফাক অফিসে বর্তমানে অবস্থান করা একটি সূত্র থেকেই পাবলিক ভয়েস বিষয়গুলো সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে।

অপরদিকে আর একটি সূত্র থেকে জানা গেছে – আজকের মিটিংয়ে যেসব এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম হলো – বেফাকের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মহাসচিব এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফের সাথে কথপোকথন এবং বেফাকের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ফাঁস হওয়া ফোনালাপ বিষয়ে আলোচনা এবং চলমান বিতর্ক নিয়ে সঠিক সুরাহা।

এবং সূত্রটি আরও নিশ্চিত করেছে যে – কেন্দ্রীয় পরীক্ষার মেধা তালিকা নিয়ে সিরিয়াল জালিয়াতি, পরীক্ষার মারকাজ নিয়ে অনৈতিক সুবিধা গ্রহণ, স্বজন-প্রীতি, মুরব্বি আলেমদের নামে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য এবং সহকর্মীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে বেফাকের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাওলানা আবু ইউসুফকে বরখাস্ত করা হতে পারে আজকের মিটিং থেকে।

এছাড়াও ফোনালাপগুলো কিভাবে ফাঁস হলো এবং ফোনালাপে থাকা বিষয়গুলো সম্পর্কেও খাস কমিটির কাছে অভিযুক্তদের জবাবদিহীতামূলক আলোচনা হতে পারে এই মিটিংয়ে।

অপরদিকে সোশ্যাল মিডিয়া কওমী মাদরাসা সংশ্লিষ্ট তরুণদের মধ্যে এসব নিয়ে অসন্তোষ বেড়েই চলছে। তারা বেফাকের দুর্নীতির বিষয়ে অভিযোগ সম্পর্কে যথাযোগ্য তদন্ত এবং অপরাধিদের শাস্তির দাবি করছেন। এমনকি অনেককে দেখা গেছে – এসব বিষয়ে প্রতিবাদি পোস্টার করে প্রকাশ করতে এবং বেফাকের এসব অনিয়মের বিচার না হলে পরীক্ষা বর্জনের হুমকি সহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলছেন তারা। যদিও কাদের নেতৃত্বে এবং কিভাবে তারা এসব প্রতিবাদী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবেন তা জানা যায়নি।

আরআর/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন