টিভি টকশোতে চিকিৎসার জ্ঞান দিতেন ভুয়া চিকিৎসক!

প্রকাশিত: ৯:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০২০

টিভি চ্যানেলের টকশোতে হাজির হয়ে চিকিৎসাবিষয়ক জ্ঞানগর্ভ আলোচনা করতেন তিনি। অবলীলায় দিতেন বিভিন্ন রোগের নির্দেশনাও। তার নাম শাখাওয়াত হোসেন সুমন। তার প্রতিষ্ঠানে চিকিৎসার নামে প্রতারণার বিভিন্ন ফাঁদ ও অনিয়ম বেরিয়ে এসেছে র‌্যাবের অভিযানে।

রাজধানীর ডেমরার শারুলিয়ায় এস এইচ এস হেলথ কেয়ার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ডায়গনস্টিক সেন্টার নামের ওই প্রতিষ্ঠানে রবিবার (১২ জুলাই) সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত এই অভিযান চালায় র‌্যাব। র‌্যাবের ভাষ্য, অভিযানে সাখাওয়াত হোসেন সুমনের হাসপাতালে পাওয়া গেছে সরকারি অনুমোদিত ওষুধ এবং মেয়াদউত্তীর্ন প্রচুর ওষুধ। এছাড়া অক্সিজেন সিলিন্ডারের বদলে কার্বন-ডাই অক্সাইডের বোতল ব্যবহার করা হচ্ছিল সেখানে। আর রোগীদের কাছ থেকে রোগ নির্ণয়ের নমুনা সংগ্রহ করা হলেও তা পরীক্ষা না করেই মনগড়া রিপোর্ট দেয়া হচ্ছিল।

গত একবছর আগে হাসপাতালটির লাইসেন্সের মেয়াদও শেষ হয়েছিল। র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু  বলেন, ‘ডেমরায় এই হাসপাতালটিতে অভিযান চালিয়ে ২০ জনের মতো রোগী আমরা দেখতে পেয়েছি। এই রোগীরা ভুয়া চিকিৎসক শাখাওয়াত হোসেন সুমনের কাছে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন।’

শাখাওয়াত হোসেন সুমনকে ভুয়া চিকিৎসক বলা হচ্ছে জানতে চাইলে পলাশ কুমার বসু বলেন, এই ব্যক্তি তার চিকিৎসকের কোনো সনদ দেখাতে পারেননি। র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ আরও বলেন, ‘হাসপাতালটি খুবই নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর ছিল।

একবছর আগেই তাদের লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও পুনরায় অনুমোদন নেয়নি। হাসপাতালের আইসিইউতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ নেই। ডায়গনস্টিক সেন্টারেরও নামে কিছু মেশিন থাকলেও অধিকাংশ যন্ত্রপাতি নেই। একারণে তারা মনগড়া রিপোর্ট দিতো। রিপোর্টে যে চিকিৎসকের নাম ও সিল ব্যবহার করা হচ্ছিলো ওই চিকিৎসক একবছর আগেই প্রতিষ্ঠান থেকে ইস্তফা দিয়েছেন।’

এদিকে ভ্রাম্যমান আদালত চেয়ারম্যান সুমন ছাড়াও টেকেনোলজিস্ট অসীম মণ্ডলকে ১ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদণ্ড ও ফার্মাসিস্ট মো. কাকন মিয়া ৫ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের কারাদণ্ড এবং হাসপাতালটি সিলগালা করে দেয়।

ওয়াইপি/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন