আফগান সরকারের যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব গ্রহণ করেনি তালেবান

গত সপ্তাহে তালেবানকে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব দিয়েছিলো আফগান সরকার

প্রকাশিত: ১২:০৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০২০

আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি নেতৃত্বাধীন সরকার তালেবানকে গত সপ্তাহে যুদ্ধবিরতির আহবান জানিয়েছিলেন। কিন্তু তালেবান সাফ সাফ জানিয়ে দিয়েছে – “তারা কোন ধরণের যুদ্ধ বিরতিতে যাবে না” খবর আনাদুলু এজেন্সির।

আশরাফ ঘানি সতর্ক করেছিলেন যে তালেবান যুদ্ধ চালিয়ে গেলে শান্তি প্রক্রিয়া ‘গুরুতর চ্যালেঞ্জের’ মুখোমুখি হতে পারে কিন্তু গতকাল রোববার তালেবানরা আফগান সরকার ও আমেরিকার পক্ষ থেকে আহবান করা যুদ্ধবিরতি বন্ধের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে জানিয়েছে যে – “তারা চলমান যুদ্ধের “বিকল্প” এখনও খুঁজে পায়নি”।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহেদ টুইটারে বলেছেন যে – ২৯ শে ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্র ও তালেবানদের মধ্যে স্বাক্ষরিত দোহার চুক্তি বাস্তবায়ন এবং সংঘাত নিরসন ও অবসান ঘটাতে আন্তঃ-আফগান আলোচনার সূচনা দরকার আছে তবে “যদি কেউ আলোচনার আগে যুদ্ধবিরতি চায় তবে তা অযৌক্তিক। যুদ্ধ ঠিকঠাকভাবে চলছে, আমাদের কাছে এখনও যুদ্ধের বিকল্প খুঁজে পাওয়া যায়নি।”

জাবিউল্লাহ জোর দিয়ে বলেছেন যে- যুদ্ধের সমাধানের জন্য বন্দী বিনিময় অবশ্যই শেষ করতে হবে এবং আন্তঃ-আফগান আলোচনাকে “অবিলম্বে” শুরু করতে হবে।

গত সপ্তাহে, আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আশরাফ ঘানি সতর্ক করেছিলেন যে, তালেবান যুদ্ধ চালিয়ে গেলে শান্তি প্রক্রিয়া “গুরুতর চ্যালেঞ্জের” মুখোমুখি হতে পারে।

প্রায় ২০ টি আঞ্চলিক দেশ এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের সাথে ভার্চুয়াল সম্মেলনে ঘানি জোর দিয়েছিলেন যে আফগান সরকারের যুদ্ধ শেষ করার ক্ষমতা এবং রাজনৈতিক ইচ্ছা থেকেই তারা তালেবানকে একটি প্রস্তাব দিয়েছে সহিংসতা থেকে দূরে সরে আসতে।

সরকারী সূত্রে জানা গেছে, আফগান সরকারী কারাগারে পাকিস্তান, মধ্য এশিয়া ও উপসাগরীয় দেশগুলির বন্দিসহ ১২ হাজার থেকে ১৫ হাজারের অধিক বন্দী রয়েছে। যাদের অধিকাংশই তালেবান সম্পর্কিত।

মন্তব্য করুন