সাহেদকে এক চুল ছাড় দেওয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

চিকিৎসা নিয়ে প্রতারণা করা রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক সাহেদ যত বড় ক্ষমতাবানই হোক না কেন, অপরাধ প্রমাণিত হলে ছাড় দেয়া হবে না জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

গতকাল শুক্রবার ধানমন্ডির বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ দিকে রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক সাহেদকে ধরতে দেশের সীমান্ত এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে র্যাব ও পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সাহেদ সীমান্ত এলাকা বেনাপোলে অবস্থান করছেন এমন সংবাদে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সেখানে অভিযান চালিয়েছে। একটি সূত্র জানিয়েছে ওই এলাকায় সাহেদের গাড়ি দেখা গেছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সাহেদকে ছাড় দেয়ার প্রশ্নই আসে না। প্রধানমন্ত্রী সংসদ সদস্যকেও ছাড় দেননি। দলীয় নেতাদেরও তিনি ছাড় দিচ্ছেন না। যার (সাহেদ) কথা বলছেন, যত বড় ক্ষমতাবানই হোক না কেন, যদি প্রমাণিত হয় তাকে ছাড় দেয়া হবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সাহেদকে ধরার জন্য অনুসন্ধান চলছে। র্যাব ও পুলিশ উভয়েই খুঁজছে। আমরা মনে করি, শিগগিরই তথ্য দিতে পারব।

গত ৭ জুলাই উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতালে র্যাবের অভিযান চলাকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সাহেদের ফোন দেয়ার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি ফোন দিয়ে তার হাসপাতালে রোগী ভর্তি করি। সেই সুবাদে তিনি আমাকে ফোন দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, হাসপাতাল সিল করে দিচ্ছে। আমি বলেছি, আপনি নিশ্চয়ই কোনো অন্যায় কাজ করেছেন, এ জন্য সিল করছে। বিনা কারণে তো সিল করে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, সাহেদ বললেন, আমি তাহলে কী করব? আমি বললাম, হয় আপনি ফেস করেন, আপনার যদি কিছু বলার থাকে কোর্টে যান। এটুকুই আমি বলেছি।
সাহেদকে ধরতে বেনাপোল সীমান্তে সতর্কতা
রিজেন্ট গ্রুপ হাসপাতাল মালিক মো: সাহেদের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে কড়া সতর্কতা জারি করা হয়েছে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে। সীমান্তেও সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

গতকাল শুক্রবার সকালে সতর্কতার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ ও বিজিবি কর্তৃপক্ষ। তারা বলছে, যোগাযোগব্যবস্থা সহজ ও বিস্তীর্ণ সীমান্ত এলাকা হওয়ায় এ পথে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সম্ভবনাকে উড়িয়ে দেয়া যায় না। এজন্য দেশের অন্যান্য সীমান্তের পাশাপাশি বেনাপোল সীমান্তরক্ষী ও ইমিগ্রেশন পুলিশ যথেষ্ট সতর্কতা অবলম্বন করছে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহসান হাবিব বলেন, রিজেন্ট গ্রুপ ও হাসপাতালের মালিক মো: সাহেদের দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে একটি বার্তা এসেছে। কোনো কৌশল অবলম্বন করে যেন তিনি ভারতে পালাতে না পারেন, সে জন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।’
৪৯ ব্যাটালিয়ন বিজিবির অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল সেলিম রেজা বলেন, আমরা সব ধরনের অবৈধ অনুপ্রবেশ রোধে সতর্ক থেকে কাজ করছি। এ অবস্থায় সীমান্তে কর্তব্যরতদের আরো সতর্ক থেকে দায়িত্ব পালন করতে বলা হয়েছে।

সাহেদের মুখপাত্র তরিকুল ৫ দিনের রিমান্ডে
রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক সাহেদের মুখপাত্র তরিকুল ইসলাম ওরফে তারেক শিবলীকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল শুক্রবার ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া শুনানি শেষে রিমান্ডের এই আদেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, উত্তরা পশ্চিম থানার মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মো: আলমগীর গাজী আসামি তরিকুল ইসলামের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর নাখালপাড়া থেকে তরিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে র‍্যাব।

প্রসঙ্গত, গত ৬ জুলাই র্যাব রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান চালায়। পরীক্ষা ছাড়াই করোনার সনদ দিয়ে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা ও অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল তারা। র্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত অন্তত ছয় হাজার ভুয়া করোনা পরীক্ষার সনদ পাওয়ার প্রমাণ পায়। একদিন পর গত ৭ জুলাই স্বাস্থ্য অধিদফতরের নির্দেশে র্যাব রিজেন্ট হাসপাতাল ও তার মূল কার্যালয় সিলগালা করে দেয়। রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে ওই দিনই উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করা হয়

মন্তব্য করুন