ভারতের কাছে বিশ্বকাপ বিক্রির অভিযোগে সাঙ্গাকারাকে ১০ঘন্টা জেরা

প্রকাশিত: ৫:০৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০

২০১১ বিশ্বকাপ ভারতের কাছে ‘বিক্রি’ করে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা এমন দাবি করেছিলেন শ্রীলংকার সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী মহিন্দানন্দ আলুথাগমাগের। এমন গুরুতর অভিযোগের পর সত্যতা জানতে তদন্তে নেমেছে দেশটির ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের বিশেষ তদন্ত বিভাগ। তারই জেরে বৃহস্পতিবার ওই ফাইনালের অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারাকে ১০ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

এদিকে প্রিয় ক্রিকেটারকে এতোটা সময় আটকে রেখে জেরা করায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে ভক্ত-সমর্থকরা। সাবেক ক্রিকেটারদের হেনস্থা করা হচ্ছে বলে মনে করছেন তারা। বিশেষ করে সাঙ্গাকারা ভক্তরা দেশটির ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সামনে প্রতিবাদে জড়ো হয়েছেন। সেখানে চলছে সাবেক ক্রিকেটারদের হয়রানির বিপক্ষে নানা কর্মূসচি।

এদিকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমকে সাঙ্গাকারা বলেছেন, ‘জবানবন্দি দিতে এসেছিলাম এখানে। খেলাটার প্রতি আমার দায়িত্ববোধ ও সম্মান থেকেই ১০ ঘণ্টা ধরে জবাব দিয়েছি। মহিন্দানন্দ আলুথাগমাগে যে অভিযোগ তুলেছেন, আশা করি তদন্তে সে বিষয়ে সকল সত্য উদঘাটিত হবে।’ অবশ্য জবানবন্দিতে তিনি কী বলেছেন এ সংবাদিকদের প্রশ্নে চুপ থেকেছেন সাঙ্গাকারা।

সাঙ্গাকারার আগে বিশেষ তদন্ত কর্মকর্তাদের সামনে হাজির হতে হয়েছিল ফাইনালের ওপেনিং ব্যাটসম্যান থারাঙ্গা। তখনকার লঙ্কানদের প্রধান নির্বাচক অরভিন্দ ডি সিলভাকে ডাকা হয়েছিল। প্রায় ছয় ঘন্টা ধরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সাঙ্গাকারার পাশাপাশি ডাকা হয়েছিল ৯ বছর আগের সেই ফাইনালে শ্রীলঙ্কার সহ-অধিনায়ক মাহেলা জয়াবর্ধনেকেও। তিনি হাজির হলে তাকে পরে ডাকা হবে বলে জানিয়ে দেয় তদন্ত কর্মকর্তারা। লঙ্কান বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এমন তথ্যই জানানো হয়েছে।

২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের কাছে ৬ উইকেটে হেরেছিল শ্রীলঙ্কা। ফাইনালে আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ২৭৪ রান তুলেছিল শ্রীলঙ্কা। ভারতের ইনিংসে তাদের শুরুটাও ছিল দারুণ। কিন্তু বাজে ফিল্ডিং ও বোলিংয়ের কারণ সহজ জয় ছিনিয়ে নেয় ভারত। ওই ম্যাচের পর দায়িত্ব ছাড়েন সাঙ্গাকারা ও জয়াবর্ধনে।

ওয়াইপি/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন