নিয়ন্ত্রণরেখায় ২০ হাজার চীনা সেনা মোতায়েন, উদ্বিগ্ন ভারত

প্রকাশিত: ৫:৪৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ২, ২০২০

ভারতের পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ২০ হাজার সেনা মোতায়েন করেছে চীন। এছাড়াও নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে প্রায় ১ হাজার কিলোমিটার দূরে জিনজিয়াং প্রদেশেও একটি ডিভিশন (১০ থেকে ১২ হাজার সেনা) প্রস্তুত রেখেছে চীন। নির্দেশনা পেলেই মাত্র ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই সীমান্তে পৌঁছাতে পাবে ওই প্রস্তুত সেনারা।

একই সঙ্গে সামরিক যানও মোতায়েন করেছে চীন। তবে চীনের সব কাজের উপর নজরদারি করেছে ভারতও। ভারতের সংবাদ সংস্থা এএনআই’র বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে সংবাদ প্রতিদিন।

সূত্রের বরাত দিয়ে ওই খবরে বলা হয়, এর আগে তিব্বতে দুই ডিভিশন সেনা মোতায়েন করে ছিলো চীন। এবার চীনের মূল ভূখণ্ডের সুদূর প্রান্ত থেকে প্রায় ২ হাজার কিলোমিটারের কাছে আরো দুই ডিভিশন সেনা মোতায়েন করেছে চীন। দ্রুত গতিতে ময়দানে এগিয়ে যাওয়ার জন্য এদের সঙ্গে সাঁজোয়া গাড়ির সম্ভার ও হামলা চালানোর জন্য ভারি হাতিয়ারও রয়েছে।

এদিকে, চীনের গতিবিধির উপর নজর রেখেছে ভারতও। পূর্ব লাদাখে অতিরিক্ত দুই ডিভিশন সেনা মোতায়েন করেছে ভারতও। একই সঙ্গে দৌলত বেগ ওলডিতে মোতায়েন থাকা ‘আরমরড ব্রিগেড’কে সাপোর্ট দিতে দ্রুতই বিমানে করে বিএমপি-২ ও টি-৯০ ভীষ্ম ট্যাংকও নেয়া হয় সেখানে। এছাড়াও কারাকোরাম গিরিপথ থেকে গালওয়ান উপত্যকায় চীনের যুদ্ধ প্রস্তুতি উপর নজরে রেখে আর একটি ডিভিশন মোতায়েন করার কথাও ভাবছে ভারত। বর্তমানে পূর্ব লাদখের সুরক্ষার দায়িত্ব রয়েছে কারু স্থিত ‘ত্রিশূল ইনফ্যান্টরি ডিভিশন’র হাতে।

এদিকে সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চললেও থেমে নেই চীন। এবার উপগ্রহ থেকে তোলা চিত্রে দেখা গেছে, লাদাখে প্যাংগং লেকের ধরে সেনা মোতায়েন করেছে চীন। ফিঙ্গার ৪ থেকে আর ভারতীয় সেনাদের টহল দিতে দিচ্ছে না চীন। বর্তমানে ওই ফিঙ্গার ৪-ই কার্যত সীমান্ত হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফিঙ্গার ৪ পর্যন্ত এসে নির্মাণ কাজও শুরু করেছে চীনের সেনাবাহিনী। যা ভারতের উদ্বেগকে আরো বাড়িয়ে দিয়েছে।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন