গণমাধ্যমের কন্ঠরোধ করতেই ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা : চরমোনাই পীর

প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২০

ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন ও এক প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে মামলা’র নিন্দা জানিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম বলেছেন, সংবাদপত্র ও গণমাধ্যমের কন্ঠরোধ করতে ও গণমাধ্যমকে সরকার দলীয় প্রচারপত্রে পরিনত করতে ইনকিলাব সম্পাদকের বিরুদ্ধে হয়রানীমূলক মামলা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন সম্পর্কে কারো আপত্তি থাকলে সে বিষয়ে প্রতিবাদ বা সংশোধনী দেয়ার বিধান অনুস্বরণ না করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার অপব্যবহার করে জাতীয় দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলা সংবাদপত্রের কন্ঠরোধ করার অপচেষ্ঠা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে দাবি করেছেন তিনি।

দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে চরমোনাই পীর উপরোক্ত কথা বলেন।

তিরি বলেন, দৈনিক ইনকিলাব একটি প্রিন্ট পত্রিকা। অনলাইনের যুগে এ পত্রিকার সকল সংবাদ অনলাইন সংস্করনে প্রকাশিত হওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু প্রিন্ট প্রত্রিকার সংবাদে কারো কোন বক্তব্য থাকলে সে বিষয়ে যথাযথ নিয়মে প্রতিবাদ করা ও প্রেস কাউন্সিলে মামলা করার পদ্ধতি অনুস্বরণ না করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের প্রমান করেছে এ মামলা এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংবাদপত্রের কন্ঠরোধ এবং সাংবাদিকদেরকে হযরানীর জন্য ।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর পীর সাহেব চরমোনাই, দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন ও সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়রানীমূলক মামলা প্রত্যাহার, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হয়রানীর স্বীকার হয়ে গ্রেফতার সাংবাদিকদের অবিলম্বে মুক্তি প্রদান এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ ও কন্ঠরোধের জন্য তৈরী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করতে সরকারের নিকট দাবী জানান। এদাবীতে সাংবাদিকদেও সকল আন্দোলনের সাথে তিনি একত্বতা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রক্ষা এবং কন্ঠরোধের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের পাশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ অতীতে ছিলো ভবিষ্যতেও থাকবে, ইনশাআল্লাহ।

প্রসঙ্গত : প্রধানমন্ত্রী, প্রশাসন এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমামকে জড়িয়ে কটূক্তিমূলক সংবাদ প্রকাশ করায় দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক বাহাউদ্দীন ও সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা (আইসিটি) আইনে মামলা করেছেন এক আইনজীবী।গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ব্যারিস্টার সৌমিত্র সরদার বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলাটি করেন।

গুলশান থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী, প্রশাসন, এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচটি ইমামকে নিয়ে ‘কটূক্তি’ করে সংবাদ প্রকাশ করার অভিযোগে এনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করা হয়েছে। মামলায় দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক বাহাউদ্দীন ও সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদককে আসামি করা হয়েছে।

এর আগে পত্রিকাটিতে ‘এইচ টি ইমামকে সরিয়ে দিন’ শিরোনামে একটি মন্তব্য প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ওই প্রতিবেদনে মানবপাচারে কুয়েতে আটক হওয়া লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহিদ ইসলাম পাপুলের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমামকে জড়ানো হয়। এতে সংক্ষুব্ধ হয়ে মামলাটি করা হয়।

#আরআর/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন