৭ মাস পরও কবরে অক্ষত ‘ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’ নেতার লাশ

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, জুন ২৪, ২০২০

ইন্তেকালের সাত মাস পর প্রবল বৃষ্টিতে ভেঙ্গে যাওয়া কবর মেরামত করতে গিয়ে দেখা গেলো – কবর দেওয়া লাশটি সম্পূর্ণ অক্ষত অবস্থায় আছে। এমনকি কাফনের কাপড়টি পর্যন্ত সামান্য ক্ষতি হয়নি।

বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলায় এমনই একটি ঘটনা ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

জানা যায় – বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলায় চরমোনাইর মরহুম পীর সাহেব রহ.-এর প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটির ছদর (প্রধান) ও দেশের পরিচিত রাজনৈতিক দল ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ উজিরপুর উপজেলা শাখার এক সময়ের সভাপতি মরহুম ডাঃ আকবার হোসেন মিয়ার কবরে এমন ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সহযোগী সংগঠন ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারী জেনারেল এবং উজিরপুর আসনের হাতপাখা প্রতীকে সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী মাওলানা নেসার উদ্দীন জানান –

গত ৭ মাস আগে তিনি ইন্তেকাল করেন এমনকি পারিবারিক সিদ্ধান্তে মাওলানা নেসার উদ্দীনই তার নামাজে জানাজায় ইমামতির দায়িত্ব পালন করেছিলেন বলেও জানান। এরপর যথা নিয়মে তাকে তাঁর পারিবারিক কবরস্থানেই দাফন করা হয় তখন।

কিন্তু গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণ ও অতি-বৃষ্টির ফলে আজ বুধবার (২৪ জুন) তার কবরটি ভেঙ্গে পড়লে পরিবারের লোকজন কবরটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়।

এরপর কবরের ভিতরে জমে থাকা পানি সেচ করার পরে দেখা যায় তাকে যেভাবে দাফন করা হয়েছিল কাফনের কাপড়সহ ঠিক সেভাবেই লাশটি অক্ষত অবস্থায় আছে। বিষয়টি দেখে অনেকেই অবাক হন এবং পূনরায় যথানিয়মে তাকে দাফন করে রাখেন পরিবারের লোকজন।

মরহুম ডাঃ আকবার হোসেন মিয়া সম্পর্কে জানা যায় – তিনি চরমোনাইর মরহুম পীর সৈয়দ ফজলুল করিম রহমতুল্লাহি আলাইহি একজন সুযোগ্য অনুসারী ছিলেন।

এবং তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটিসহ চরমোনাই পরিচালিত একাধিক সংগঠনের সাথে সারাজীবন যুক্ত ছিলেন।

এছাড়াও তিনি চরমোনাইতে অনুষ্ঠিত হওয়া দেশের বৃহৎ ইসলামিক গণজমায়েত চরমোনাইয়ের বার্ষিক দুই মাহফিল হাসপাতাল দায়িত্ব পালন করতে। সেখানে তিনি প্রতিবছরই দীর্ঘ সময় সম্পূর্ণ ফ্রিতে মাহফিলে আগত মুসুল্লিদের ফ্রি-তে চিকিৎসা সেবা দিতেন।

আরআর/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন