আজাদ রহ. স্বরণে নারায়ণগঞ্জে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত: ১১:০৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ২২, ২০২০

বাংলাদেশে ইসলামি সংগীতের পুরধা ব্যাক্তি ও ইশা ছাত্র আন্দোলন এর সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আইনুদ্দীন আল আজাদ রহ-এর ১০তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে ‘আঈনুদ্দীন আল আজাদ (রহ.) জীবন কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

২১ জুন রোববার সকাল ১০টায় নারায়ণগঞ্জ শিবু মার্কেটের আইএসসিএ মিলনায়তনে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার উদ্যোগে শাখা সভাপতি শিব্বির আহমাদ এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ সারোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় কমিটির মুহতারাম প্রচার ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক কে.এম. শরীয়াতুল্লাহ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কে.এম. শরীয়াতুল্লাহ বলেন, মাওলানা আইনুদ্দীন আল আজাদ (রহ.) ছিলেন ইসলাম কেন্দ্রিক রাজনীতি ও সংস্কৃতির অঙ্গনের একজন উদ্যমী ব্যক্তি। সুললিত কণ্ঠে তিনি যেমন শোনাতেন ইসলামের সাম্য ও আদর্শের বাণী তেমনি তুলে ধরতেন সমাজের নানা অবিচার ও অসঙ্গতি। বাতিল ও অপসংস্কৃতির মোকাবেলায় সুস্থ ও নির্মল সংস্কৃতির বিকাশের লক্ষ্যে তিনি নিষ্ঠার সাথে কাজ করেছেন। কিশোর ও যুবসমাজকে পাশ্চাত্যের উৎকট সংস্কৃতি থেকে রক্ষার জন্য গড়ে তুলেছিলেন মননশীল এক সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ‘কলরব’।

আরও পড়ুন – আইনুদ্দীন আল আজাদ রহ : সংগীত ও সংগ্রামের মহানায়ক (জিবনী)

রাজনৈতিক অঙ্গনেই তাঁর সবচেয়ে বেশি পদচারণা ছিল। তিনি ইশা ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। সংগঠন-এর প্রয়োজনেই পরে তিনি কলরব নামীয় সাংস্কৃতিক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেছেন।

প্রধান অতিথির কে.এম. শরীয়াতুল্লাহ আরও বলেন, মাওলানা আঈনুদ্দীন আল আজাদ (রহ.)এর আধ্যাত্মিক রাহবার ছিলেন চরমোনাইর পীর মরহুম সৈয়দ ফজলুল করীম (রহ.)। পীর ছাহেব হুজুরের সাথে সম্পর্কের ফলে তিনি ইসলামী রাজনীতিতে যুক্ত হন এবং উদ্যম ও সততার কারণে অল্প দিনেই দলের সবার কাছে প্রিয় ও আস্থাভাজন হয়ে ওঠেন। দেশব্যাপী অপসংস্কৃতির সয়লাব এবং কিশোর ও তরুণ সমাজের অবক্ষয় রোধে তিনি কাজ শুরু করেন। গান, বাদ্য ও উদ্যম নৃত্য-গীতের মোকাবেলায় তিনি শুদ্ধ ও নির্মল গজল-সঙ্গীত পরিবেশন করতে শুরু করেন। পাশাপাশি ওয়াজ-নসীহত, বক্তৃতাও করতে থাকেন। তাঁর সুরে ও কথায় অসংখ্য মানুষ মুগ্ধ হয় এবং দেশে-বিদেশে তার অনেক ভক্ত তৈরি হয়। হাজারো মানুুষের ভক্তি ও ভালবাসায় সিক্ত হয়ে পূর্ণ উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে তিনি এগিয়ে যেতে থাকেন।

সভাপতির বক্তব্যে শিব্বির আহমাদ বলেন, ইশা ছাত্র আন্দোলন এর সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মাওলানা আঈনুদ্দীন আল আজাদ (রহ.) ছিলেন ইসলামী সংগীতের কিংবদন্তি ও ইসলামী সংগীত সম্রাট। বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এই উদ্যমী মানুষটি হঠাৎ করেই আমাদের মাঝ থেকে বিদায় নিয়ে গেছেন। ২০১০ সালের ১৮ জুন সড়ক দুর্ঘটনায় তিনি ইন্তেকাল করেন।

মাওলানা আঈনুদ্দীন আল আজাদ (রহ.) ছিলেন সদা হাস্যময়। অপরিচিতকে আপন করে নিতে তাঁর বিলম্ব হত না। তাঁর মাঝে একরাম ও এহসানের গুণ ছিল চোখে পড়ার মতো। অন্যের উপকারের জন্য নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন। বিশেষত শিশু-কিশোর ও নবীনদের নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখতেন। অজপাড়াগাঁয়ের অনেক ছেলেকে নিজ খরচে ঢাকায় এনে তাদের প্রতিভার পরিচর্যা করেছেন। কেউ সমস্যায় পড়লে স্বেচ্ছায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতেন। লেবাস-পোশাকে ও বেশ-ভূষায় সব সময়ই সুন্নতের ইত্তেবা করতেন। পাগড়ি, লম্বা জামা তাকে মর্দে মুমিনের মতো দেখাতো। সঙ্গী ও সহকর্মীদেরকেও ইত্তেবায়ে সুন্নতের অনুসরণের তাগিদ দিতেন। দ্বীনের খেদমতের প্রেরণা তাঁর মধ্যে সর্বদাই জাগ্রত থাকতো।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সংগ্রামী ছাত্র ও যুব বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মাদ জাহাঙ্গীর কবীর, ইসলামী যুব আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মামুনুর রশীদ, ইশা ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ মুহাম্মাদ হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল হান্নান, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আনোয়ার হোসেনসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

#আরআর/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন