বিয়ে না করায় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে প্রেমিকার ধর্ষণ মামলা

প্রকাশিত: ৭:৪৯ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০

ঢাকার ধামরাইয়ে প্রেমিকের বাড়িতে তিনদিন অনশনে থাকার পরও বিয়ে না করায় ক্ষুদ্ধ হয়ে প্রেমিক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন প্রেমিকা। এতে বিপাকে পড়েছে ওই পুলিশ সদস্য ও তার পরিবার।

জানা গেছে, ধামরাইয়ের নান্নার ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের আব্দুল লতিফ নাতুর কলেজ পড়ুয়া মেয়ে নাসরিন তার বান্ধবীর মাধ্যমে ধামরাইয়ের সানোড়া ইউনিয়নের বাসনা গ্রামের মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে পুলিশ সদস্যে সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। দীর্ঘদিন তাদের প্রেম চলে। সম্প্রতি প্রেমিকা পুলিশ সদস্যেকে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। বিয়েতে অস্বীকৃতি জানালে বিয়ের দাবি নিয়ে বাসনা গ্রামে পুলিশ সদস্যের বাড়িতে উঠে ওই প্রেমিকা।

তিনদিন অবস্থানের পর বিয়ে না করায় বাড়ির সবাইকে জেলের ভাত খাওয়াবে বলে হুমকি দিয়ে ধামরাই থানায় পুলিশ সদস্য পেমিকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় উল্লেখ করা হয়, গত ৮ মার্চ ধামরায়ের কালামপুর খোরশেদ আলমের বাড়িতে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে। কিন্তু বিষয়টি অস্বীকার করে ওই পুলিশ সদস্য তার পরিবারকে জানিয়েছেন ওইদিন তিনি কর্মস্থল মিরপুরে ছিলেন। তাই ধর্ষণের ঘটনাটি সত্য নয়।

পুলিশ সদস্য সাদ্দামের বাবা মোজ্জামেল হোসেন বলেন, আমাকে জেলের ভাত খাওয়াবে এবং ছেলের চাকরির ক্ষতি করার জন্য চক্রান্ত করা হচ্ছে। কারো প্রলোভনে আমার ছেলের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণ মামলা দিয়েছে।

ধামরাই থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি দীপক চন্দ্র সাহা জানান, এ ঘটনায় থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের হয়েছে।

ওয়াইপি/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন