ভোলায় রাসূল সা.কে কটূক্তি: অভিযুক্ত যুবক আটক

মনপুরা, ভোলা

প্রকাশিত: ১০:৫৮ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০২০
ইনসেটে (উপরে ডানে) অভিযুক্ত শ্রীরাম চন্দ্র দাস

মনপুরা, ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার মনপুরার রাসূল সা.কে অবমাননার ঘটনায় অভিযুক্ত শ্রীরাম চন্দ্র দাসকে (৩৫) আটক করেছে পুলিশ।

শ্রীরামকে আটকের খবর নিশ্চিত করেছেন মনপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাখাওয়াত হোসেন।

আটক শ্রীরাম ফেসবুকে নবীজি সা.কে কটূক্তি করে পোস্ট শেয়ার করে। এই ঘটনার জেরে জুমার নামাজের পরে বিক্ষোভ করে স্থানীয় মুসুল্লিরা। এসময় বিক্ষোভে পুলিশের হামলায় অন্তত ৪জন গুরুতরসহ আরো অন্তত ৩জন আহত হয়।

আজ শুক্রবার (১৫ মে) জুমার নামাজের পর ভোলার মনপুরায় এঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উপজেলার ১নং মনপুরা ইউনিয়নের শ্রীরাম নামের এক হিন্দু যুবক মহানবী সা.কে নিয়ে কটূক্তি করে ফেসবুকে পোস্ট করে। নবীজি সা. ও আয়েশা রাযিয়াল্লাহু আনহুকে জড়িয়ে অশ্লীল অশোভন ব্লগপোস্ট শেয়ার করে শ্রীরাম। পরে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে পরে নিজের টাইমলাইন থেকে তা সরিয়ে ফেলে শ্রীরাম। তবে তার পোস্টের স্ক্রীণশর্ট সংগ্রহে আছে এই প্রতিবেদকের কাছে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার জুমআর নামাজ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় মুসুল্লিরা। এসময় বিক্ষুব্ধরা মনপুরার চৌমুহনী বাজারের কুটূক্তিকারী শ্রীরামের দুইটি দোকান ভাংচুর করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য পুলিশ লাঠিচার্জ ও গুলি ছুড়ে।

এসময় ২জন গুলিবিদ্ধ হওয়াসহ অন্তত ৪জন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, করিম (২৪) মোঃ ছাইফুল (৩৫) রাশেদ (১৯) জহিরুল (৩১)। এছাড়াও  রাজিব (১৯), আলাউদ্দিন (৪৭), সানাউল্লাহসহ (৩৩) আরো ৩জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপুল চন্দ্র দাস জানান, কটূক্তিকারী যুবক পুলিশি হেফাজতে রয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা হলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ফেইসবুকের ঘটনাকে কেন্দ্র করে মনপুরায় অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। তবে কিছু উশৃঙ্খল মানুষ পরিস্থিতি উত্তেজিত করে। সবাইকে সাথে নিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে।

মনপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, ফেসবুকে মহানবী সা. ও বিবি আয়শা রা.কে  জড়িয়ে কুটূক্তিমূলক পোস্ট দেয়ায় শ্রীরাম নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

ওসি মো. শাখাওয়াত বলেন, ‘উত্তেজিত জনতা ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে হামলা করলে পুলিশ বাঁধা দেয়। তখন বিক্ষোভকারীরা পুলিশের উপর হামলার চেষ্ঠা করলে পুলিশ ২০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে। আটক যুবকের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। বর্তমানে পরিস্থিতি আমাদের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে’।

এদিকে বিক্ষোভে পুলিশের অতর্কিত হামলা ও গুলির ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন মনপুরার স্থানীয় ওলামায়ে কেরাম।

সংশ্লিষ্ট খবর: ভোলায় ফের নবী অবমাননা: মুসুল্লিদের বিক্ষোভ, পুলিশের গুলিতে আহত ৪

/এসএস

মন্তব্য করুন