যুক্তরাজ্যে হোম কেয়ারে অন্তত ২০ হাজার মানুষ মারা গেছে: রয়টার্স

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি

প্রকাশিত: ৪:০৯ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, ছবি: ‘দ্য ডেইলি বিস্ট’

ব্রিটেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অন্তত ২০ হাজার মানুষ কেয়ার হোমগুলোতে মারা গেছে। ব্রিটিশ সরকারের তথ্যের উপর ভিত্তি করে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এই হিসাব দিয়েছে।

ফ্রান্স, স্পেন ও ইতালিকে ছাড়িয়ে মৃত্যের দ্বিতীয় সর্বাধিক মৃত্যুর সংখ্যা এখন ব্রিটেনে। ইউরোপের এ শীর্ষ দেশটিতে আজ বুধবার দুপুর সাড়ে তিনটা পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা সংখ্যা ৩২ হাজার ৬৯২জন। আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ২৬ হাজার ৪৬৩জন। বিপরীতে সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী সুস্থ হওয়ার সংখ্যা মাত্র ৩৪৪জন।

তবে রয়টার্সের হিসেবে ১ মে পর্যন্ত আট সপ্তাহে ব্রিটেনে মারা গেছে ৩৭ হাজার ৬২৭ জন মানুষ যার মধ্যে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের কেয়ার হোমগুলোতে মারা গেছে ২০ হাজার।

মৃত্যুর এই সংখ্যার মধ্যে স্কটল্যান্ডের মৃত্যুর হিসাব নেই। এছাড়া, করোনা আক্রান্ত বহু রোগী যারা কেয়ার হোম থেকে পরবর্তীতে হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে এবং মারা গেছে তাদেরকেও এই হিসাবের মধ্যে আনা হয়নি।

শুধু স্কটল্যান্ডের হিসাব ধরলেই বর্তমানে ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের মহামারীতে মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে যা ইউরোপে যেকোনো দেশের চেয়ে বেশি। এতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরি-স জনসনের করোনাভাইরাস মোকাবেলার কৌশল এবং যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

এরমধ্যে বরিস নিজেও করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। যদি শুরু থেকে জনসমাগম এড়ানোর পরিবর্তে বরং উৎসাহ দিয়েছিলেন বরিস। সামাজিক দূরত্ব না মেনে শেষ পর্যন্ত নিজেই আক্রান্ত হন।

/এসএস

মন্তব্য করুন