রেমিট্যান্স ‘খরা’ কাটাতে শর্ত শিথিল

প্রকাশিত: ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০

করোনাভাইরাসের কারণে গোটা পৃথিবীতে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। থমকে গেছে বাংলাদেশের অর্থনীতিও। কমে গেছে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স। এ অবস্থায় প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠাতে উৎসাহিত করতে এ সংক্রান্ত প্রণোদনার ক্ষেত্রে শর্ত শিথিলের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা নীতি বিভাগ মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে।

এতে বলা হয়, এখন থেকে ৫ হাজার মার্কিন ডলার বা ৫ লাখ টাকার সমপরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠালে ২ শতাংশ প্রণোদনা পাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো ধরনের কাগজপত্র জমা দিতে হবে না। সেইসঙ্গে ৫ লাখ টাকার বেশি রেমিট্যান্সের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র দাখিলের জন্য এখন থেকে দুই মাস সময় পাওয়া যাবে।

আগের ঘোষণা অনুযায়ী, দেড় হাজার মার্কিন ডলার বা দেড় লাখ টাকার বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বিনা প্রশ্নে প্রণোদনার কথা বলা হয়েছিল। আর তা পেতে হলে ১৫ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিলের বাধ্যবাধকতার কথা বলা হয়।

জানা যায়, ‘বৈধ উপায়ে রেমিট্যান্স প্রেরণের বিপরীতে নগদ সহায়তা প্রদান’ শীর্ষক ওই সার্কুলার সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়ে বলা হয়েছে, এই সিদ্ধান্ত গত ১ জুলাই (২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম দিন) থেকে কার্যকর ধরা হবে। আর এই সুবিধা বহাল থাকবে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক কাজী ছাইদুর রহমান বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সংকট দেখা দিয়েছে। এ কারণে কমে গেছে রেমিট্যান্স প্রবাহ। তাই রেমিট্যান্স পাঠাতে প্রবাসীদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যেই এই সুবিধা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব বলছে, গেল এপ্রিল মাসে রেমিট্যান্স এসেছে ১০৮ কোটি ১০ লাখ ডলার। গত বছরের একই সময়ের চেয়ে যা ২৪ দশমিক ৬১ শতাংশ কম। এর আগের মাস অর্থাৎ মার্চে এসেছে ১২৮ কোটি ৬৮ লাখ ডলার। গত বছরের মার্চ মাসের চেয়ে যা ১৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ কম।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন