‘মার্কিন বাহিনীকে মধ্যপ্রাচ্য থেকে জোর করে বের করা হবে’

প্রকাশিত: ১২:২৩ অপরাহ্ণ, মে ৯, ২০২০

বাগদাদের জুমার নামাজের খতিব ও দেশটির শীর্ষ পর্যায়ের আলেম সাইয়্যেদ ইয়াসিন আল-মুসাভি বলেছেন, মার্কিন বাহিনী মধ্যপ্রাচ্য থেকে যেতে ইচ্ছুক নয়। ফলে তাদেরকে এ অঞ্চল থেকে প্রতিরোধের মুখে চলে যেতে হবে। তিনি বলেন, একমাত্র প্রতিরোধ আন্দোলনই পারে মার্কিন বাহিনীকে মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চল থেকে বহিষ্কার করতে।

ইয়াসিন আল-মুসাভি বলেন, যারা চাই মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন বাহিনীর উপস্থিতি থাকুক এবং এর বিরুদ্ধে কোনো প্রতিরোধ যারা দেখতে চায় না তারা প্রকৃতপক্ষে ন্যায়বিচারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে এবং বিশ্ব থেকে অবিচার দূর করার প্রক্রিয়া বিলম্বিত করতে চায়।

সাইয়্যেদ মুসাভি বলেন, পবিত্র রমজান মাসে যে সমস্ত দোয়া করা দরকার তার মধ্যে এই দোয়া থাকা দরকার যে, মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন বাহিনীর বিদায় হোক।

গত জানুয়ারি মাসের প্রথম দিকে ইরাকের জাতীয় সংসদ সে দেশ থেকে মার্কিন বাহিনীকে বহিষ্কারের দাবিতে একটি প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে পাস করে। ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র কুদস ফোর্সের সাবেক প্রধান মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং ইরাকের পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহদি আল মুহান্দিসকে মার্কিন বাহিনী হত্যা করার পর ইরাকের সংসদে এ প্রস্তাব পাস করা হয়।

ইরাকের নতুন প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাজেমিও বলেছেন, তার দেশকে কারো বিরুদ্ধে আগ্রাসনের জন্য কাউকে ব্যবহার করতে দেয়া হবে না।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন