এবার ফেসবুক লাইভে তারাবী, জুমা ও ঈদের নামাজ পড়ার ঘোষণা

প্রকাশিত: ৩:২৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২২, ২০২০

ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে তারাবী, জুমা ও ঈদের জামাতের উদ্ভট আয়োজন করেছে নিউইয়র্কের মোহাম্মদী সেন্টার নামে একটি সংগঠন। খবর প্রথম আলোর।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকের লাইভ স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে ঘর থেকেই সপরিবারে জামাতে যোগ দেওয়া যাবে বলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। যদিও তারা ধর্মীয় কোন বিশেষজ্ঞের সাথে আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কি না তা জানাননি।

নিউইয়র্কের মুসলিম ধর্মাবলম্বী কমিউনিটিতে জ্যাকসন হাইটসের মোহাম্মদী সেন্টার বিভিন্ন পরিষেবা নিয়ে কাজ করছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে নিউইয়র্কের মসজিদগুলো বন্ধ থাকায় মুসল্লিদের কথা বিবেচনা করে ফেসবুক লাইভে তারাবি, জুমা ও ঈদুল ফিতরের জামাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষ এই বৃহষ্পতিবার ২৩ এপ্রিল স্থানীয় সময় রাত ১০টা ৪০ মিনিটে মোহাম্মদী সেন্টার থেকে ইমাম কাজি কাইয়্যুম ‘সূরা তারাবী’ নামের ফেসবুক আইডিতে যুক্ত হয়ে তারাবির নামাজে ইমাম হিসেবে নেতৃত্ব দেবেন। একইভাবে ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে প্রতি শুক্রবার নিউইয়র্ক সময় ২টায় জুমার নামাজের জামাতেও মুসল্লিরা অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

নিউইয়র্কে লকডাউনের সময়সীমা ১৫ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। সতর্কতা হিসেবে জন্য জুন পর্যন্ত নগরীর উন্মুক্ত স্থানে যেকোনো ধরনের জমায়েতেরে বষিয়ে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই নিউইয়র্ক ঈদগাহের একটিমাত্র জামাত সকাল সাড়ে ৯টায় ফেসবুক লাইভে মোহম্মদী সেন্টার থেকে সরাসরি আদায় করা হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

তবে টিভি দেখে বা এ ধরণের লাইভে নামাজ আদায়ের বিষয়টির সাথে ইসলামী শরিয়তের কোন সম্পর্ক নেই জানিয়ে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতী সুলতান মহিউদ্দিন কয়েকদিন আগে পাবলিক ভয়েসকে বলেছেন, এ ধরণের সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ শরীয়ত বিরোধী। যা ধর্ম সম্পর্কে অজ্ঞতার পরিচয় বহন করে। এবং এগুলো ইসলাম ও মুসলমাদের গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত নামাজকে নিয়ে চরম ধৃষ্টতা ও তামাশা করার শামিল। মুফতী সুলতান মহিউদ্দিন এই বক্তব্য টেলিভিশন দেখে দেখে নামাজ পড়ার বিষয়ে দিলেও ফেসবুক লাইভ এবং টেলিভিশনে নামাজের বিষয়টি একই রকমের।

টিভি দেখে তারাবী পড়ার বক্তব্য সম্পূর্ন শরীয়ত বিরোধী : খেলাফত আন্দোলন

মন্তব্য করুন