দিনাজপুর-শেরপুরে জ্বর-সর্দি-শ্বাসকষ্ট নিয়ে ২ ব্যক্তির মৃত্যু

প্রকাশিত: ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৩০, ২০২০

দিনাজপুরে ও শেরপুরে জ্বর, সর্দি-শ্বাসকষ্ট নিয়ে দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় ওই দুই ব্যক্তির আশপাশের বাড়ি লকডাউন করে রাখা হয়েছে। ২৯ মার্চ, রবিবার দিবাগত রাতে শেরপুরে এবং ৩০ মার্চ, সোমবার ভোর বেলা দিনাজপুরে এই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

এর মধ্যে মৃত ফরহাদ হোসেন দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার জোতবানী ইউনিয়নের তপসী গ্রামের মৃত হানিফ উদ্দিনের ছেলে। সোমবার ভোরে তপসী গ্রামে জ্বর-সর্দিতে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় মৃত ব্যক্তির বাড়ির চার সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কার্যালয়।

জোতবানী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, ফরহাদ হোসেন কুমিল্লায় কৃষি শ্রমিকের কাজ করতেন। তিনি কুমিল্লায় যে বাড়িতে কাজ করতেন সেই বাড়ির মালিক সৌদি প্রবাসী। সম্প্রতি বাড়ির মালিক সৌদি থেকে দেশে আসেন। এরপর কুমিল্লার প্রশাসন সৌদি প্রবাসীর ওই বাড়ির সকলকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন। এ সময় গত ১০/১২ দিন আগে ফরহাদ হোসেন জ্বর সর্দিতে আক্রান্ত হয়ে কুমিল্লা থেকে পালিয়ে নিজ বাড়িতে আসেন।

তিনি আরো জানান, এছাড়া ফরহাদ জন্ডিসেও আক্রান্ত হন। কিন্তু তিনি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না গিয়ে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা করাতে থাকেন। সোমবার ভোরে ফরহাদ মারা যান। ফরহাদ হোসেন মারা যাবার পর ওই পাড়ায় যাতে কোনো লোক ঢুকতে বা বের হতে না পারে সে জন্য গ্রাম পুলিশের পাহারা বসানো হয়েছে।

এ বিষয়ে বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদী জানান, মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। বাড়ির সকলকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এদিকে শেরপুরের ওই ব্যক্তি তিন দিন জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভোগার পর তার মৃত্যু হয়। রবিবার দিবাগত রাতে নালিতাবাড়ী উপজেলার দক্ষিণ পলাশীকুড়া গ্রামে মারা যান তিনি। তিনি করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে ওই বাড়িসহ আশেপাশের কয়েকটি বাড়ি ‘লকডাউন’ ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুর রহমান জানান, ময়মনসিংহের ভালুকা থেকে গত তিন দিন আগে ওই ব্যক্তি জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে নালিতাবাড়ীর গ্রামের বাড়িতে এসেছিলেন। তিনি ভালুকায় তিনি নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন বলে জানা গেছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. এ কে এম আনওয়ারুর রউফ জানান, ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য আইইডিসিআরে যোগাযোগ করা হচ্ছে। সোমবার নমুনা সংগ্রহের পর ওই ব্যক্তির দাফন ও জানাজা হবে।বাংলা।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন