পাকিস্তানে নামাজ চালু রাখায় বহু ইমাম গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০২০

পাকিস্তানে জামাতে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় বেশ বহু ইমামকে গ্রেফতারের খবর পাওয়া গেছে। পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন জানিয়েছে গ্রেফতার সংখ্যা ৫। জন। তবে কিছু কিছু গণমাধ্যম গ্রেফতার সংখ্যা ৪৩ জন পর্যন্ত জানিয়েছে।

ডন-এর প্রকাশিত সংবাদে গ্রেফতারকৃত পাঁচজন হলেন, মুহাম্মদ আব্বাস রিজভী, নূরপুরার জামিয়া মসজিদ গাউসিয়া রিজভিয়ার ক্বারী মুহাম্মদ সাবির, করিমাবাদের জামিয়া মসজিদ গুলজার-ই-মদিনার ক্বারী মুহাম্মদ মাজহার ও করিমাবাদের মুহাম্মদ উসমান।

শুক্রবার জুমার নামাজে জামাতের ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার অভিযোগে দেশটির সিন্ধু ও পাঞ্জাব প্রদেশ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে গতকাল পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

তবে কিছু কিছু গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, শুক্রবার সিন্ধু প্রদেশের করাচিতে পুলিশ ৮৮টি এফআইআর নথিভুক্ত করেছে এবং জন্য ৩৮ জন ইমামকে আটক করেছে।  এবং মিলিয়ে বিভিন্ন অঞ্চলে প্রায় ৪৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাদেশিক সরকার ঘোষণা করেছিল যে, কোভিড-19 এর বিস্তার নিয়ন্ত্রণে নাগরিকদের ৫ এপ্রিল পর্যন্ত মসজিদে জুমার নামাজসহ জামাতে নামাজ পড়া যাবে না।

পাঞ্জাব সরকার পাঁচ ওয়াক্তের সাধারণ নামাজ ও জুমার নামাজের সময় সমস্ত মসজিদ তালাবদ্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছিল। কেবল মুয়াজ্জিন, ইমামসহ পাঁচ জনকে মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি দেয়া হয়েছিল।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং পুলিশ মসজিদগুলো পরিদর্শন করার সময় নির্দেশটি লঙ্ঘনের অভিযোগে তাদেরকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে পাকিস্তান দন্ডবিধি ধারা ১৮৬ (জনসমাবেশ বাতিলে সরকারি কর্মচারীদের কাজে বাধা দেয়া), ১৮৮ (আইনগত বাধ্যবাধকতা থাকা সত্ত্বেও সরকারি কর্মচারীকে সহায়তা না করা) এবং ২৬৯ (জীবনের জন্য বিপজ্জনক সংক্রামক রোগ ঠেকাতে জারি করা বিধি-নিষেধ অমান্য করা) এর অধীন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন